সোমবার - জুন ১৭ - ২০২৪

রুজভেল্ট ডগলাসের ওপর নজর রেখেছিল আরসিএমপি

কৃষ্ণাঙ্গ অধিকারকর্মী রুজভেল্ট রোজি ডগলাসের ব্যাপারে যে রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশের আরসিএমপি খুবই আগ্রহ ছিল সেটা সবারই জানা কিন্তু ১৯৭০ এর দশকে তরুণ এই ক্যারিবীয় অতিথির ওপর আরসিএমপি কতটা কতটা নজর রেখেছিল সম্প্রতি প্রকাশিত এক নথিতে তা উঠে এসেছে

কৃষ্ণাঙ্গ অধিকারকর্মী রুজভেল্ট রোজি ডগলাসের ব্যাপারে যে রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশের (আরসিএমপি) খুবই আগ্রহ ছিল সেটা সবারই জানা। কিন্তু ১৯৭০ এর দশকে তরুণ এই ক্যারিবীয় অতিথির ওপর আরসিএমপি কতটা কতটা নজর রেখেছিল সম্প্রতি প্রকাশিত এক নথিতে তা উঠে এসেছে।

ডগলাস কানাডার স্কুলে ভর্তি হয়েছিলেন এবং পরবর্তীকালে তিনি ডোমিনিকার প্রধানমন্ত্রীও হন। ডোমিনিকার এক ধনী নারিকেল চাষীর ছেলে ডগলাস প্রথমে কানাডা আসেন কৃষি নিয়ে পড়ালেখা করার উদ্দেশে। এরপর তিনি মন্ট্রিয়লের স্যার জর্জ উইলিয়ামস ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হন।

- Advertisement -

শুরুতে তিনি কনজার্ভেটিভ পার্টির সমর্থক থাকলেও পরবর্তীতে কৃষ্ণাঙ্গদের পক্ষে উচ্চকণ্ঠ হন এবং আন্তর্জাতিক নেতাদের সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলেন। ১৯৬৯ সালের গোড়ার দিকে ডগলাস ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটির মাস্টার্সের শিক্ষার্থী থাকলেও স্যার জর্জ উইলিয়ামস ইউনিভার্সিটিতে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের অন্যতম নেতা হয়ে ওঠেন তিনি। বিশ^বিদ্যালয়ের কম্পিউটার সেন্টার থেকে পুলিশ বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীদের তুলে দিতে চাইলে অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে এবং বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ওই ঘটনায় যে অসংখ্য মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয় ডগলাস তাদের অন্যতম এবং তার বিরুদ্ধে অভিযোগও আনা হয়। তাকে ১৮ মাস জেল খাটতে হয় এবং ১৯৭৬ সালে তাকে কানাডা ছাড়তে হয়। যদিও কানাডায় থাকতে সব ধরনের লড়াই-ই তিনি করেছিলেন।

ব্রিটেনের কাছ থেকে ডোমিনিকার স্বাধীনতার দাবিকে এগিয়ে নেন ডগলাস এবং ২০০০ সালে ৫৮ বছর বয়সে মারা যাওয়ার আগে কিছু সময়ের জন্য ডোমিনার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

আরসিএমপির প্রশ্নবিদ্ধ নিরাপত্তা কার্যক্রম নিয়ে তদন্ত পরিচালনাকারী কমিশন এই তথ্য নিশ্চিত করেছে যে, ৪০ বছর আগে ডগলাস কানাডায় অবস্থানকালে সিকিউরিটি সার্ভিসের নজরদারির মধ্যে ছিলেন। এজন আরসিএমপি একজন তথ্যদাতা নিয়োগ দিয়েছিল, যিনি কৃষ্ণাঙ্গ কর্শীদের সম্প্রদায়ে প্রবেশ করে ডগলাসের একজন সহযোগী হয়ে ওঠেন।

আরসিএমপি জানতো যে, ছোট দূরত্ব ভ্রমণে ডগলাস তার নিজের গাড়ি ব্যবহার করতেন। কিন্তু দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে বাহিনীর নিয়োগ দেওয়া একজন তথ্যদাতার ওপর নির্ভর করতেন।

- Advertisement -

Read More

Recent