বুধবার - মে ২২ - ২০২৪

সাবেক এমপি রাজ গ্রেওয়ালের বিরুদ্ধে অভিযোগ খারিজ

অন্টারিও সুপিরিয়র কোর্ট অব জাস্টিসের বিচারক সিলভিয়া কর্থন শুক্রবার সকালে তার রায়ে গত গ্রীষ্ম থেকে চলা বিচার সমাপ্ত ঘোষণা করেন রায়ের পর গ্রেওয়াল সাংবাদিকদের বলেন আজ আদালত আমার পক্ষে রায় দিয়েছে

সাবেক লিবারেল এমপি রাজ গ্রেওয়ালের বিরুদ্ধে বিশ^াসভঙ্গের অভিযোগ বাতিল করে দিয়েছেন অন্টারিওর একজন বিচারক। রাজ গ্রেওয়ালের বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত লাভের জন্য তার রাজনৈতিক প্রভাব কাজে লাগানোর অভিযোগ উঠেছিল।

অন্টারিও সুপিরিয়র কোর্ট অব জাস্টিসের বিচারক সিলভিয়া কর্থন শুক্রবার সকালে তার রায়ে গত গ্রীষ্ম থেকে চলা বিচার সমাপ্ত ঘোষণা করেন। রায়ের পর গ্রেওয়াল সাংবাদিকদের বলেন, আজ আদালত আমার পক্ষে রায় দিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আমার জীবনের চ্যালেঞ্জিং একটি অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি ঘটলো। বিচার ব্যবস্থা যদিও ত্রুটিমুক্ত নয় এবং কানাডিয়ান হিসেবে আমাদের অনেক কিছু করতে হয় তারপরও এটা জেনে আমাদের মধ্যে এই স্বস্তিবোধ তৈরি হয় যে, আমাদের একটি স্বাধীন ও যোগ্য বিচার ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু জনতার আদালতে অপরাধেল একটি বোধ থেকেই যায়। গত সাড়ে চার বছর ধরে এই অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে আমাকে যেতে হয়েছে ।

- Advertisement -

বিষয়টি সামনে এলে এবং এ নিয়ে জনগণের মধ্যে শোরগোল তৈরি হলে ২০১৮ সালে ফেডারেল লিবারেল ককাস ছাড়তে হয় গ্রেওয়ালকে। ২০১৯ সালের নির্বাচনে পুনরায় অংশ না নেওয়ারও সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ২০২০ সালে রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশ তার বিরুদ্ধে চার কাউন্ট বিশ^াস ভঙ্গ ও ৫ হাজার ডলারের বেশি প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করে। আদালতের এই রায়ের পর বিশ^াস ভঙ্গের আরও দুটি অভিযোগ রয়ে গেলো।

মামলায় আরসিএমপি অভিযোগ করে যে, বড় অংকের ঋণের বিনিময়ে গ্রেওয়াল প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে দেখা করিয়ে দেওয়ার ও অভিভাসনে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

এ ব্যাপারে সবচেয়ে প্রধান যে প্রমাণ তা হলো ব্র্যাম্পটন এরিয়ার দুজন ব্যবসায়ী ২০১৮ সালে ভারত সফরে ট্রুডোর সফরসঙ্গী হয়েছিলেন। ওই দুই ব্যক্তির প্রত্যেকে গ্রেওয়ালকে ২ লাখ ডলার করে ঋণ দিয়েছিলেন। কিন্তু বিচার চলাকালে উভয়েই এই বিবৃতি দেন যে, এ ধরনের ঋণের বিনিময়ে এ ধরনের সুযোগ তারা আশা করেননি।

আদালতের বাইরে গ্রেওয়ালের আইনজীবী নাদির হোসন বলেন, বিজ্ঞ বিচারক এটিকে প্রমাণ অযোগ্য হিসেবে মনে করেছেন।

তবে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

- Advertisement -

Read More

Recent