শনিবার - মার্চ ২ - ২০২৪

পরিচ্ছন্ন জ্বালানি বিধিমালা চালু

বিধিমালাটির ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সরকার প্রথম প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল ২০১৬ সালে এবং গত বছর এটি চূড়ান্ত হয়েছে গ্যাসোলিন ও ডিজেল পরিচ্ছন্ন করার মাধ্যমে পরিবেশ দূষণ কমিয়ে আনাই এর উদ্দেশ্য

ফেডারেল সরকারের পরিচ্ছন্ন জ্বালানি বিধিমালা শনিবার কার্যকর হয়েছে। এর অর্থ হলো কিছু কানাডিয়ানকে গ্যাস বাবদ পাম্পে আরও বেশি অর্থ পরিশোধ করতে হতে পারে। এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিধিমালাটির ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সরকার প্রথম প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল ২০১৬ সালে এবং গত বছর এটি চূড়ান্ত হয়েছে। গ্যাসোলিন ও ডিজেল পরিচ্ছন্ন করার মাধ্যমে পরিবেশ দূষণ কমিয়ে আনাই এর উদ্দেশ্য। বিমিালায় কেবলমাত্র গ্যাসোলিন ও ডিজেল পরিশোধনকারী ও আমদানিকারকদেরকেই বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। কার্বন প্রাইসিংয়ের মতো সরাসরি ভোক্তাদেরকে বিবেচনায় নেওয়া হয়নি। এই শিল্প খাতকে তাদের নিজস্ব ক্রেডিট তৈরি অথবা অন্য উৎস থেকে ক্রেডিট কেনার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ভোক্তাদের ওপর সরাসরি মূল্য আারোপের ব্যবস্থঅ না থাকলেও যেসব কোম্পানিকে ক্রেডিটের জন্য অর্থ পরিশোধ করতে হবে তারা অবশ্যই তা ভোক্তাদের দিকে চালান করে দেবে।

- Advertisement -

ধারণাটি হচ্ছে এমন যে, পরিচ্ছন্ন জ্বালানি বিধিমালা ১ জুলাই কার্যকর হয়েছে। গ্যাস ও ডিজেল এর আওতার মধ্যে রয়েছে। এর ফলে আপনাকে কার্বন ইনটেনসিটি হ্রাস করতে হবে।

উৎপাদন থেকে শুরু করে প্রক্রিয়াকরণ, পরিবহন এবং গ্যাসোলিন ও ডিজেল ব্যবহার পর্যন্ত অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের যে জীবনচক্র সেটাই কার্বন ইনটেনসিটি। জ্বালানিকে পরিচ্ছন্ন করতে কানাডিয়ান শিল্পকে ২০৩০ সাল নাগাদ ১৫ শতমাংশ হ্রাস করতে হবে। ২০১৬ সালের ভিত্তির অনুপাতে এই হ্রাস করতে হবে।

আপনার গাড়িতে আপনি যে গ্যাসোলিন ও ডিজেল ব্যবহার করেন তাকে ড্রপ-ইন বলা হয়ে থাকে। এর অর্থ হলো পূর্ণাঙ্গ জীবনচক্র থেকে কার্বন নিঃসরণ ১৫ শতাংশ হ্রাস পাবে। সুতরাং এটাকে পরিচ্ছন্ন জ্বালানি বলা যায়। তবে অধিকাংশ কানাডিয়ানের জন্য ভালো সংবাদ এটাই যে, গ্যাস পাম্পে এই মুহূর্তে জ্বালানির দাম বাড়ছে না।

তবে পূর্ব উপকূলে যারা বসবাস করছেন শনিবার থেকেই তাদেরকে গ্যাসের বর্ধিত মূল্য পরিশোধ করতে হচ্ছে। নিউ ব্রান্সউইক ৭ জুলাই গ্যাসের দাম লিটারপ্রতি ৮ শতাংশ বাড়িয়েছে। এ ছাড়া নোভা স্কশিয়া বাড়িয়েছে ৩ দশমিক ৭৪ শতাংশ। দাম বাড়ানো হবে কিনা সে ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি প্রিন্স এডওয়ার্ড, নিউফাউন্ডল্যান্ড এবং ল্যাব্রাডোর।

This article was written by Rezaul Haque as part of the LJI

- Advertisement -

Read More

Recent