রবিবার - জুলাই ১৪ - ২০২৪

১২জন রাষ্ট্রদুতের বিবৃতি

ড মোজাম্মেল খান

হিরো আলমের ঘটনা নিয়ে ১২জন রাষ্ট্রদুতের বিবৃতি প্রসঙ্গে কিছু প্রশ্ন।

হিরো আলমের ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গেই আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কয়েকজনকে এরেস্ট করেছে, কয়েকজনকে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। এটা নিতান্তই বাংলাদেশের আভ্যন্তরিন ব্যাপার। এটা নিয়ে বিবৃতি দেয়া কি ভিয়েনা কনভেসের নীতিমালা লঙ্ঘন নয়।

- Advertisement -

আমি তিনজন রাষ্ট্রদূতকে প্রশ্ন করতে চাই।

প্রথমেই শুরু করি ক্যানাডা নিয়ে, আমি এখন যে দেশেরও নাগরিক। আমাদের এ দেশ বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত খুনী নুর চৌধুরীকে আশ্রয় দিয়েছেন। আমাদের সরকার বলছে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া কাউকে ক্যানাডা ফেরত পাঠায় না। এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমেরিকাতে মৃত্যুদণ্ড ২ খুনীকে ক্যানাডা ফেরত পাঠিয়েছে। তখন সুপ্রিমকোর্ট তাদের রায়ে বলেছেঃ “ ক্যানাডাতে মৃত্যুদণ্ড না থাকতে পারে, কিন্তু যে দেশে অপরাধ সংঘটিত হয়েছে সে দেশে আইনকে ক্যানাডার শ্রদ্ধা দেখাতে হবে”।

এবার যুক্তরাষ্ট্রকে প্রশ্ন করছি। বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত খুনী রাশেদ চৌধুরীকে আশ্রয় দিয়েছেন। কি কারনে তাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছেন না?

এবার আসি যুক্তরাজ্যের দিকে। যুদ্ধ অপরাধে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত মইনুদ্দিন চৌধুরী আরাম আয়েশে আপনাদের দেশে জীবন উপভোগ করছে। কেন আপনারা তাকে ফেরত পাঠাচ্ছেন না?

এবারে আসি দুর্নীতির বরপুত্র, একাধিক দুর্নীতি মামলায় দুর্নীতি দণ্ডপ্রাপ্ত, ২১ শে (যার সাথে আপনাদের সঙ্ঘটিত জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের তুলনা কর হয়েছে) আগস্ট হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত, কোটি কোটি টাকার মনোনয়ন বাণিজ্যের টাকা বিনা বাধায় আপনাদের দেশের ব্যাঙ্কে জমা হচ্ছে সেই তারেক রহমান আপনাদের দেশে আরাম আয়েশে জীবন উপভোগ করেছ। আপনাদের মুখে কি নৈতিকতা আর মানাবিধাকার শব্দ মানায়?

আগে আয়নায় নিজেদের মুখ দেখুন অন্যের উপদেশ দেয়ার আগে। বাংলাদেশ আপনাদের কলোনি নয়।

- Advertisement -

Read More

Recent