সোমবার - জুন ১৭ - ২০২৪

কানাডায় প্রিয়তমা’র সেলস রিপোর্ট

প্রিয়তমার প্রথম সপ্তাহের সেলস রিপোর্ট দেখে সত্যি চমকে গেছি

‘প্রিয়তমা’র প্রথম সপ্তাহের সেলস রিপোর্ট দেখে সত্যি চমকে গেছি!

এতগুলো প্রাইম লোকেশন ছাড়া মুক্তি পেয়েও ‘প্রিয়তমা’ যখন প্রথম ৩ দিনে ৪৪ হাজার ডলার গ্রস করল, খুবই অবাক হয়েছিলাম। তবে এরপরের ৪ দিনে যা হল, সেটা অবিশ্বাস্য। শুধু অবিশ্বাস্য বললে ভুল হবে, খুবই অবিশ্বাস্য।

- Advertisement -

উইকেন্ড হবার কারনে আমেরিকা কানাডায় একটি সিনেমার পুরো সপ্তাহের ব্যবসাটা হয় মূলত শুক্রবার রাত, শনিবার আর রবিবার। তাই এ ৩ দিনের আয় দেখে সিনেমা চেইনগুলি প্রতি সোমবার সিদ্ধান্ত নেয় সিনেমাটা পরের সপ্তাহে যাবার যোগ্যতা রাখে কিনা! সপ্তাহের বাকি দিনগুলি উইকডে হবার কারণে ধরেই নেয়া হয় এ সময়ে এত বেশি মানুষ সিনেমা দেখতে হলমুখি হবেনা। তাই এ সময়কার আয় দেখে সিদ্ধান্ত নিলে সেটা সঠিক না হবার সম্ভাবনাই বেশি। বরং, উইকডের সেলকে বুস্ট করার জন্য প্রতি মঙ্গলবার এখানে একটি বিশেষ প্রোগ্রাম চালু আছে। ঐদিন সব সিনেমার টিকেটের দাম সব থিয়েটারে প্রায় অর্ধেক (৬০%) থাকে।

স্বাভাবিকভাবেই তাই, মঙ্গলবারে বাংলাদেশের সিনেমা দেখতে অনেক লোকের সমাগম হয় থিয়েটারগুলিতে। এটা এখন পর্যন্ত মুক্তি পাওয়া আমাদের সব সিনেমার বেলায় দেখা গেছে। ‘প্রিয়তমা’র বেলাতেও তা ঘটবে এটা অবধারিতই ছিল। কিন্তু সেটা কতটুকু কেমন হবে তা আন্দাজ করা যায়নি। এখানে একটা কথা, মঙ্গলবারে টিকেট এর দাম প্রায় অর্ধেক হওয়াতে স্বাভাবিক সময়ের মত সেল দিতে ঐদিন স্বাভাবিক সময়ের প্রায় দ্বিগুণ দর্শক উপস্থিতি দরকার হয়। কিন্তু উইকডের প্রেশারে এটা হওয়া সবসময় প্র্যাক্টিক্যাল না।

এ ধরনের কিছ ইম্প্র্যাকটিক্যাল ব্যাপারই ঘটে গেল ‘প্রিয়তমা’র বেলায়। উইকডের ৪ দিনে উইকেন্ডের ৩ দিনের প্রায় সমান সেল পাওয়া সত্যিই চমকে যাবার মত ঘটনা, সে সাথে আমাদের সিনেমার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণও। শুধু মঙ্গলবার ইফেক্ট দিয়ে এটা এচিভ করা ইম্পসিবল। এবং, সেটা হয়ও নি। মঙ্গলবারে অনেক লোক সিনেমাটি দেখেছেন সত্যি, কিন্ত অন্য ৩ দিনেও দর্শক উপস্থিতি উইকডে হিসেবে বেশ আশা জাগানিয়া ছিল।

প্রথম সপ্তাহ শেষে ‘প্রিয়তমা’র আয়ঃ ৮৪,০০০ ডলার

উত্তর আমেরিকায় প্রথম সপ্তাহের আয়ের বিবেচনায় এটি এখন বাংলাদেশের সিনেমা ইতিহাসের ২য় সর্বোচ্চ আয়কারী সিনেমা।

এ আয়ের পেছনে সবচেয়ে বেশি অবদান

১। জ্যামাইকা মাল্টিপ্লেক্স, নিউইয়র্ক – ৩৫,৫১৪ ডলার (সর্বোচ্চ আয়কারী ‘হাওয়া’ সিনেমা এ থিয়েটারে প্রথম সপ্তাহে ৩৭ হাজার ডলার আয় করেছিল)

২। সিনেপ্লেক্স এগলিন্টন, টরন্টো – ১১,৪২৩ ডলার

এখন তো মনে হচ্ছে, সিনেমাটি ১০০,০০০+ ডলারের মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলতে পারে ভালোভাবেই। শুধু একটাই আফসোস, ‘প্রিয়তমা’ সবগুলো KEY লোকেশনে প্রথম সপ্তাহে মুক্তি দেয়া যায়নি, ২য় সপ্তাহেও শুধু আউটস্ট্যান্ডিং ভাল করা লোকশনগুলোতেই (৫টি তে) চলছে।

তবে ২৮ জুলাই একটা তুলনামুলক সহজ দিন আছে এ মাসে। দেখা যাক, ঐদিন কিছু নতুন থিয়েটারে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া যায় কিনা!

- Advertisement -

Read More

Recent