শনিবার - মার্চ ২ - ২০২৪

আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী গ্রহণের সীমা বেঁধে দেওয়ার কথা ভাবছে কানাডা

কানাডার আবাসন সমস্যা সমাধানের দায়িত্বপ্রাপ্ত ফেডারেল আবাসন অবকাঠামো ও কমিউনিটি মন্ত্রী শন ফ্রেজার চার্লেটনে সাংবাদিকদের কাছে এ তথ্য জানান

আবাসন বাজারের ওপর থেকে চাপ কমাতে কত সংখ্যক আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীকে কানাডায় আসার সুযোগ দেওয়া হবে সে ব্যাপারে সীমা বেঁধে দেওয়ার কথা চিন্তা করছে ফেডারেল সরকার। কানাডার আবাসন সমস্যা সমাধানের দায়িত্বপ্রাপ্ত ফেডারেল আবাসন, অবকাঠামো ও কমিউনিটি মন্ত্রী শন ফ্রেজার চার্লেটনে সাংবাদিকদের কাছে এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, আমার মনে হয় আমরা যেসব বিকল্প গ্রহণ করতে পারি এটা তার একটা। আমাদের এখানে গুরুত্ব সহকারে চিন্তা করা প্রয়োজন।

- Advertisement -

সরকারের তথ্য অনুযায়ী, কানাডা গত বছর আট লাখ আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীকে সেদেশে পড়ালেখার সুযোগ দিয়েছে।

গতক মাস পর্যন্তও অভিবাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন ফ্রেজার। তিনি বলেন, এই উচ্চ ভাড়ার মধ্যে শিক্ষার্থীরা যাতে সহজে তাদের থাকার ব্যবস্থা করে নিতে পারে সে সংক্রান্ত উপায় খুঁজতে পোস্ট সেকেন্ডারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর স ঙ্গে বৈঠকের পরিকল্পনা করছেন তিনি। তারা যদি রেকর্ড সংখ্যক আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী ভর্তি অব্যাহত রাখে তাহলে এই সমস্যা সমাধানের একটি অংশ। কারণ, তাদের থাকার ব্যবস্থা নিশ্চিত করার দায়িত্বও তাদের।

ইনস্টিটিউটগুলো আবাসন সংকট বাড়িয়ে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। ফ্রেজার বলেন, খেয়াল করলে দেখবেন, কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাদের ভবনে বসবাসের জন্য যে পরিমাণ জায়গা আছে শিক্ষার্থী ভর্তি করছে তার পাঁচ থেকে ছয়গুন। আপনাদের নিজেদের কঠিন কিছু প্রশ্ন করা শুরু করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর নতুন মন্ত্রিসভার অন্যতম লক্ষ্য হচ্ছে আবাসন সমস্যার সমাধান করা। আগামী মাসে রসংসদের অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে প্রথাগত রিট্রিটে জড়ো হচ্ছেন মন্ত্রীরা।

কানাডা মর্টগেজ অ্যান্ড হাউজিং কর্পোরেমনের (সিএমএইচসি) তথ্য অনুযায়ী, আবাসন সমস্যার সমাধানে ২০৩০ সালের মধ্যে কানাডাকে ৫৮ লাখ নতুন বাড়ি নির্মাণ করতে হবে। এর মধ্যে ভাড়া বাড়ি থাকতে হবে ২০ লাখ।

This article was written by Rezaul Haque as part of the LJI

- Advertisement -

Read More

Recent