শনিবার - মার্চ ২ - ২০২৪

অন্টারিওর আবাসনমন্ত্রীর চিফ অব স্টাফের পদত্যাগ

গ্রিনবেল্ট প্রতিবেদের পর পদত্যাগ করেছেন অন্টারিওর আবাসনমন্ত্রীর চিফ অব স্টাফ

গ্রিনবেল্ট প্রতিবেদের পর পদত্যাগ করেছেন অন্টারিওর আবাসনমন্ত্রীর চিফ অব স্টাফ। প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়, সংরক্ষিত জমি উন্মুক্ত করে দেওয়ার মধ্য দিয়ে তিনি ও সরকার নির্দিষ্ট কিছু ডেভেলপারকে সুবিধা করে দিয়েছেন।

পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রিমিয়ারের কার্যালয় থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তারা রায়ান আমাটোর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছে, যা তৎক্ষণাৎ কার্যকর হয়েছে।

- Advertisement -

গ্রিনবেল্টের কোন জমি উন্নয়নের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে তা নির্বাচনের দায়িত্বে ছিলেন আমাটো। অন্টারিওর ইন্টেগ্রিটি কমিশন ১০ আগস্ট নিশ্চিত করেছে যে, বিষয়টি আমাটো কীভাবে করেছেন তা তদন্ত করে দেখার অনুরোধ জানিয়েছে প্রিমিয়ারের কার্যালয়। তবে ইন্টেগ্রিটি কমিশনার তদন্ত শুরুর ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেননি।

এ মাসের গোড়ার দিকে হইচই ফেলা দেওয়া অডিটর জেনারেলের প্রতিবেদনে যে ১৫টি সুপারিশ করা হয়েছে প্রিমিয়ারের কার্যালয় থেকে করা এই অনুরোধ তার একটি। গ্রিনবেল্টের উন্নয়নের সিদ্ধান্ত যে প্রক্রিয়ায় নেওয়া হয়েছে তার কড়া সমালোচনা করা হয়েছে অডিটর জেনারেলের প্রতিবেদনে। প্রতিবেদনে নির্দিষ্ট কিছু ডেভেলপারকে সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতার অভাব এবং পরিবেশগত, কৃষি ও আর্থিক প্রভাব নিবেচনায় নিতে ব্যর্থতার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

গ্রিনবেল্টের কোন অংশ থেকে জমি অবমুক্ত করা হবে সে সিদ্ধান্ত মাত্র তিন সপ্তাহের মধ্যে নেওয়া হয়েছে। আমাটো এটা বাস্তবায়ন করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে অডিটর জেনারেলের প্রতিবেদনে। গ্রিনবেল্টের ওইসব অংশের নির্দিষ্ট কিছু শর্ত বদলে ফেলা হয়েছে বলেও অভিযোগ আনা হয়েছে প্রতিবেদনে। নির্ধারিত মানদ-ের সঙ্গে অধিকাংশ অংশ যায় না।

গ্রিনবেল্টের চূড়ান্ত ১৫টি অংম থেকে যে ১৪টি অংশ অবমুক্ত করা হয়েছে তা সরাসরি আমাটোর প্রস্তাবেই। গত বছরের সেপ্টেম্বরে বিল্ডিং অ্যান্ড ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারের আয়োজনে চিফ অব স্টাফ যেসব যেসব ডেভেলপারের সঙ্গে নৈশভোজে অংশ নিয়েছিলেন তাদের অনুরোধেই ৯২ শতাংশ জমি অবমুক্ত করা হয়েছে বলে অডিটর জেনারেলের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

- Advertisement -

Read More

Recent