শুক্রবার - মে ২৪ - ২০২৪

কানাডায় এমএআইডি বেড়েছে ৩১%

২০২২ সালে কানাডায় এমডিআই আগের বছরের তুলনায় ৩১ শতাংশ বেড়েছে বলে হেলথ কানাডার প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে

অনিরাময়যোগ্য রোগে আক্রান্ত বা অক্ষম ব্যক্তিদের জন্য মেডিকেলি অ্যাসিস্টেড ডেথ বা স্বেচ্ছামৃত্যু ২০১৬ সালে বৈধ করার পর থেকে এর প্রবণতা বাড়ছে। ২০২২ সালে কানাডায় এমডিআই আগের বছরের তুলনায় ৩১ শতাংশ বেড়েছে বলে হেলথ কানাডার প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালে মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্স ইন ডাইয়িং (এমএআইডি) বেছে নেন ১৩ হাজার ২৪১ জন। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত স্বেচ্ছায় মৃত্যুবরণ করেছেন ৪৪ হাজার ৯৫৮ জন কানাডিয়ান। এই হিসাবে, ২০১৯ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত বার্ষিক বৃদ্ধির হার ৩১ শতাংশ।

- Advertisement -

এমএআইডির আওতা সম্প্রসারণের আগে চতুর্থ বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী বসন্ত থেকে মানসিক রোগে আক্রান্তদেরও এর আওতায় আনা হচ্ছে। যদিও কিছু মানসিক চিকিৎসক আরও বেশি মানসিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের দাবি জানিয়েছেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর যারা এমএআইডি গ্রহণ করেছিলেন তাদের ৬৩ শতাংশই ক্যান্সারে আক্রান্ত। হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন ১৯ শতাংশ। ম্যানিটোবা ও ইয়ুকুন বাদে সব প্রদেশেই এমএআইডির সংখ্যা প্রতি বছর ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে।

এতে বলা হয়েছে, এসব রোগীদের প্রায় ৭৮ শতাংশ প্যালিয়েটিভ কেয়ার নিয়েছিলেন। আগের তিন বছরেও প্যালিয়েটিভ সেবা গ্রহীতাদের হার এমনই ছিল। এসব রোগীদের অর্ধেকের মতো এক মাস বা তার বেশি সময় ধরে সেবাটি নিয়েছিলেন। ২০২১ সালেও হারটা এমনই ছিল। এমএআইডি গ্রহীতাদের প্রায় ২০ শতাংশ প্যালিয়েটিভ সেবা নেননি। কিন্তু ৮৮ শতাংশ রোগীর জন্য সেবাটি গ্রহণের সুযোগ ছিল।

গত মঙ্গলবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ক্যান্সারে আক্রান্তদের মধ্যে প্যালিয়েটিভ সেবা গ্রহণের প্রবণতা স্বাভাবিক। তবে স্নায়ুতন্ত্রের সমস্যায় আক্রান্তদের মধ্যে ডিজঅ্যাবিলিটি সাপোর্ট সেবা নিতে দেখা যায় বেশি।

চতুর্থ এমএআইডি প্রতিবেদনে দেওয়া এক বার্তায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মার্ক হল্যান্ড বলেছেন, সুযোগটি নিরবচ্ছিন্নভাবে প্রদান করতে প্রদেশ ও অঞ্চলগুলোকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করছে অটোয়া।

- Advertisement -

Read More

Recent