শনিবার - মার্চ ২ - ২০২৪

কানাডার গ্রোসারি খাত বিশ্বের অন্যতম প্রতিযোগিতাপূর্ণ

কানাডার গ্রোসারি রিটেইল খাত বিশ্বের অন্যতম প্রতিডোগিতাপূর্ণ বলে দাবি করেছেন সবিজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইকেল মেডলিন

কানাডার গ্রোসারি রিটেইল খাত বিশ্বের অন্যতম প্রতিডোগিতাপূর্ণ বলে দাবি করেছেন সবিজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইকেল মেডলিন। যদিও কানাডিয়ানরা এখনো উচ্চ মূল্যের কামড় টের পাচ্ছেন।

হাউস অব কমন্সের কৃষি কমিটির এমপিদের সামনে তিনি বলেন, গ্রোসারি রিটেইল খাতের কথা যদি বলেন তাহলে বলব, দেশের খাদ্য মূল্যস্ফীতি বিশ্বের মধ্যে অন্যতম নিম্ন এবং কানাডা হচ্ছে অন্যতম প্রতিযোগিতাপূর্ণ দেশ। উচ্চ মূল্যের কারণে সমস্যায় থাকা কানাডিয়ানদের এটা কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছে।

- Advertisement -

মেডলিন এম্পায়ার কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহীন দায়িত্ব পালন করছেন। কোম্পানিটির অধীনে রয়েছে সবিজ এবং অন্যান্য গ্রোসারি স্টোর চেইন। মূল্য স্থিতিশীল রাখতে প্রধান গ্রোসারি কোম্পানিগুলোর শীর্ষ নেতাদের পরিকল্পনার ব্যাপারে আবারও জানতে চাইলে কমিটির সামনে হাজির হন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী ফ্রাসোয়াঁ-ফিলিপ শ্যাম্পেইন সম্প্রতি এই ঘোষণা দেন যে, লবল, মেট্রো, এম্পায়ার, ওয়ালমার্ট ও কস্টকোর মতো কানাডার প্রধান প্রধান গ্রোসাররা মূল্য বৃদ্ধি ঠেকাতে তাদের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে। মূল্য বৃদ্ধি প্রতিরোধের কৌশলের মধ্যে রয়েছে ছাড়, দাম আর না বাড়ানো এবং মূল্য সমন্বয় প্রচারণা।

তবে গ্রোসারার সুনির্দিষ্ট কী প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কারণ, পরিকল্পনার বিস্তারিত জনগণের সামনে তুলে ধরা হয়নি। তবে সবিজ প্রাথমিকভাবে নেওয়া তাদের কিছু পদক্ষেপের রূপরেখা সামনে এনেছে। কোম্পানিটি বলেছে, নভেম্বর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত ৯০ শতাংশ পণ্যের দাম তারা একই অবস্থায় রেখে দিয়ে থাকে। এখন তা তাদের এ ধরনের প্রায় সব পণ্যের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হচ্ছে।

এমপিদের মেডলিন বলেন, গত জানুয়ারিতে খাদ্যের দাম স্থিতিশীল রাখতে আমাদের অর্থপূর্ণ পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়ন না করা পর্যন্ত বাণিজ্যিক ও প্রতিযোগিতার দিক থেকে এগুলো সংবেদনশীল হওয়ায় প্রকাশ্যে সেগুলো নিয়ে আমরা আলাপ করব না।

কোভিড-১৯ মহামারির পর গ্রোসারি পণ্যের দাম দ্রুত বেড়ে যাওয়ার পর কানাডিয়ান গ্রোসাররা বড় ধরনের যাচাই-বাছাইয়ের মুখে পড়ে। বিশেষ করে কিছু গ্রোসার উচ্চ মুনাফা করার পর। মহামারি-পরবর্তী পরিস্থিতি হিসেবে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে বৈশ্বিক খাদ্য মূল্যস্ফীতি কমে এলেও কানাডায় এর দাম বাড়ছেই।

অক্টোবরে কানাডায় গ্রোসারি পণ্যের দাম আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ৪ শতাংশ বেড়েছে। ওই মাসে কানাডার সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৩ দশমিক ১ শতাংশ। এর পরিপ্রেক্ষিতে কানাডার এই খাতটি যথেষ্ট প্রতিযোগিতাপূর্ণ কিনা সেই প্রশ্ন উঠেছে। এমনকি এটা লিবারেল সরকারকে প্রতিযোগিতা আইনে পরিবর্তন আনার পথেও চালিত করেছে।

This article was written by Rezaul Haque as part of the LJI

- Advertisement -

Read More

Recent