শুক্রবার - মে ২৪ - ২০২৪

কার্বন-প্রাইসিংয়ের মূল কারণ মূল্যস্ফীতি নয়

দ্য কানাডিয়ান প্রেসকে দেওয়া বছর শেষের সাক্ষাৎকারে ট্রুডো বলেন কনজার্ভেটিভ এমপিরা দূষণের উপর মূল্য আরোপকে এই মুহূর্তে সবকিছুর মূল্য বেড়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে উল্লেখ করে সফলভাবে একে বলির পাঠা বানিয়েছেন

দূষণের ওপর মূল্য আরোপের লক্ষ্যে লিবারেলদের জলবায়ু নীতি রহস্যময় কিছু নয়। এটার মূল কারণও মূল্যস্ফীতি নয় বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। যদিও এটাই বলে আসছে কনজার্ভেটিভরা।

তবে কার্বন-প্রাইসিং নিয়ে টোরিদের বার্তা কাজে দিয়েছে। দ্য কানাডিয়ান প্রেসকে দেওয়া বছর শেষের সাক্ষাৎকারে ট্রুডো বলেন, কনজার্ভেটিভ এমপিরা দূষণের উপর মূল্য আরোপকে এই মুহূর্তে সবকিছুর মূল্য বেড়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে উল্লেখ করে সফলভাবে একে বলির পাঠা বানিয়েছেন।

- Advertisement -

ব্যাংক অব কানাডার গভর্নর টিফ ম্যাকক্লেম এ বছরের গোড়ার দিকে বলেছিলেন, কার্বন-প্রাইসিং চলতি বছর মূল্যস্ফীতির জন্য মাত্র ২০ ভাগের এক ভাগ দায়ী। মূল্যস্ফীতির হার বর্তমানে ৩ শতাংশে উঠানা-নামা করছে।

২০২২ সালে মূল্যস্ফীতি যখন বর্তমানের দ্বিগুন ছিল তখন নীতিটি এতে ৫০ ভাগের এক এক ভাগ অবদান রেখে থাকতে পারে। কার্বন-প্রাইসিং সরাসরি জ¦ালানির মূল্যের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। তবে অন্যান্য পণ্য যেমন খাদ্যের মধ্যেও এটা নিহিত। কারণ, উৎপাদক ও জ¦ালানির খুচরা বিক্রেতারা সরবরাহ ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে এই ব্যয় স্তানান্তর করে দেয়।

কার্বন-প্রাইসিং বাতিল করা হলে খাদ্যের মতো অনেক কিছু সাশ্রয়ী হবেÑএই যুক্তি দেখিয়ে কয়েক মাস ধরে কানাডাজুড়ে সমাবেশ করে আসছেন কনজার্ভেটিভ নেতা পিয়েরে পয়লিয়েভর। তবে ট্রুডো বলেন, বাস্তবতা হলো সরবরাহ ব্যবস্থা এবং ভূ-রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার মতো বৈশি^ক ঘটনা এক্ষেত্রে আরও বড় ভূমিকা রাখছে।

কানাডা সরকার কার্বন-প্রাইসিং বাতিল করলেও এ সমস্যার সমাধান হবে না। ট্রুডো বলেন, কনজার্ভেটিভরা এটা বলার চেষ্টা করছেন যে, এই মুহূর্তে কানাডিয়ানদের একমাত্র যেটা পীড়া দিচ্ছে, প্রধান যে বিষয়টি পীড়া দিচ্ছে তা হলো আমাদের দূষণের ওপর মূল নির্ধারণ।

কানাডার জাতীয় কার্বন প্রাইস নীতি পঞ্চম বর্ষে পড়তে যাচ্ছে। কনজার্ভেটিভদের নিরন্তর প্রচারণার কারণে আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে বর্তমানে এটি বেশি বিতর্কিত হয়ে পড়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, জনগণকে এখন এটা বুঝতে হবে যে, দূষণের ওপর মূল আরোপিত না থাকলে রিবেট থাকবে না।

- Advertisement -

Read More

Recent