শুক্রবার - মে ২৪ - ২০২৪

অর্থবছরের প্রথমার্ধে ২০০ কোটি ডলার কম ব্যয় করেছে অন্টারিও

অন্টারিও সরকার অর্থবছরের প্রথম দুই প্রান্তিকে পরিকল্পনার চেয়ে ২০০ কোটি ডলার কম ব্যয় করেছে

অন্টারিও সরকার অর্থবছরের প্রথম দুই প্রান্তিকে পরিকল্পনার চেয়ে ২০০ কোটি ডলার কম ব্যয় করেছে। তবে স্বাস্থ্য ও বিচার বিভাগের ব্যয় বৃদ্ধি পুষিয়ে নেওয়া হয়েছে আপৎকালীন তহবিল ব্যবহারের মধ্য দিয়ে। ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকাউন্টেবিলিটি অফিস (এফএও) অব অন্টারিওর প্রতিবেদনে এমনটাই বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০২৩ সালের এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রদেশের ব্যয়ের পরিকল্পনা ছিল ৮ হাজার ৫৬০ কোটি ডলার। তবে অনিরীক্ষিত ব্যয়ে দেখা গেছে, সরকার প্রকৃতপক্ষে খরচ করেছে ৮ হাজার ৩৬০ কোটি ডলারের মতো। যেসব কর্মসূচিতে ব্যয় সাশ্রয় হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে ঋণের সুদ, সামাজিক সেবা এবং শিক্ষা। তবে স্বাস্থ্য ও বিচার বিভাগের ক্ষেত্রে সরকার পরিকল্পনার চেয়ে বেশি ব্যয় করেছে।

- Advertisement -

স্বাস্থ্য খাতে অন্টারিওর প্রোগ্রেসিভ কনজার্ভেটিভ সরকার পরিকল্পনার চেয়ে ৮১ কোটি ১০ লাখ ডলার বেশি ব্যয় করেছে। বাড়তি এই অর্থ ব্যয় হয়েছে প্রথমত সেবা, ওষুধ কর্মসূচি এবং প্রাদেশিক কর্মসূচি বাবদ। মূলধনী ট্রানজিট প্রকল্প, বিচার বিভাগ এবং চাইল্ডকেয়ার বাবদও পরিকল্পনার চেয়ে বেশি ব্যয় করেছে সরকার। এই সমন্বয় পুষিয়ে নেওয়া হয়েছে প্রদেশের আপৎকালীন তহবিল উত্তোলনের মাধ্যমে।

চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আপৎকালীন তহবিলের অবশিষ্ট পরিমাণ ছিল ২৯০ কোটি ডলার। যদিও বছরের শুরুতে এর পরিমাণ ছিল প্রায় ৪০০ কোটি ডলার।

অর্থবছরের বাকি সময়েও অন্টারিওর ব্যয়ঢ পরিকল্পনা প্রত্যাশার চেয়ে কমিয়ে আনা হয়েছে। এফএওর তথ্য অনুযায়ী, দ্বিতীয় প্রান্তিক শেষে প্রদেশের ব্যয় পরিকল্পনা ৩ কোটি ২০ লাখ ডলার কমিয়ে আনা হয়েছে। যেসব খাতে বার্ষিক ব্যয় সবচেয়ে বেশি বেড়েছে তার মধ্যে রয়েছে মেট্রোলিংক্স অবকাঠামো প্রকল্প, লং-টার্ম কেয়ার হোম পরিচালনা এবং স্কুল বোর্ড পরিচালনায় অনুদান।

এফএওর এই প্রতিবেদন প্রকৃত ব্যয় নির্দেশ করে না বলে জানিয়েছেন ট্রেজারি বোর্ডের একজন মুখপাত্র।

- Advertisement -

Read More

Recent