শনিবার - মার্চ ২ - ২০২৪

শরনার্থীদের আশ্রয় দেওয়া বন্ধ করছে ইটোবিকোক চার্চ

শরনার্থীদের আশ্রয় দেওয়া বন্ধ করছে ইটোবিকোক চার্চ

শরনার্থীদের আশ্রয় দেওয়ার ক্ষেত্রে সামনের কাতারে থাকা টরন্টোর একটি চার্চ বলেছে, তহবিলের অভাবে ২৮ ডিসেম্বর শরনার্থীদের জন্য দরজা বন্ধ করতে বাধ্য হচ্ছে তারা। ইটোবিকোকের পিলগ্রিম ফিস্ট ট্যাবারন্যাকলসের একজন মুখপাত্র বলেন, শরনার্থীরা যাতে তাদের মাথার ওপর ছাদ পায় ও গরম খাবার খেতে পারে সেজন্য জুলাই থেকে রাত-দিন কাজ করে আসছে তারা। কানাডা নিজেও শরনার্থীদের আশ্রয়স্থল হিসেবে পরিচিত। আন্তর্জাতিকভাবে আমরা কাজটা ভালোভাবি করে থাকি বলে সুনাম আছে। এটা আমাদের দেশ এবং কৃষ্ণাঙ্গদের আমরা রাস্তার ওপর ঘুমাতে দিতে পারি না। এই পর্যায়ে সত্যিই আমাদের সহায়তাকারী প্রয়োজন।

তিনি বলেন, পিলগ্রিম ফিস্ট ট্যাবারন্যাকলসকে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে চালু রাখতে গিয়ে চার্চের ৭ থেকে ৮ লাখ ডলার ঋণ তৈরি হয়েছে। এক মাসে সবগুলো কেন্দ্রে খরচের পরিমাণ ৩০ হাজার ডলার। এর ওপর রয়েছে কর্মী বাবদ আরও এক লাখ ডলার। প্রতি মাসে কমপক্ষে আড়াই লাখ ডলার ঋণ তৈরি হয়েছে আমাদের। এই ঋণ আমাদের পরিশোধ করতে হবে।

- Advertisement -

বর্তমানে চার্চটি ৮০ জনকে আশ্রয় দিচ্ছে। কিছু মানুষকে নিয়মিতভাবে নায়াগ্রা ও উইন্ডসরের মতো এলাকার হোটেল স্থানান্তর করা হচ্ছে। অনেককে আশ্রয়কেন্দ্রে অথবা স্থায়ী আবাসনে পাঠানো হচ্ছে। আরও বেশি সংখ্যক আশ্রয়প্রার্থী অব্যাহতভাবে আসছে।

আরেকজন বলেন, গত রাতেও আমরা দরজার সামনে আশ্রয়প্রার্থীকে দেখেছি। একজন নারী ও শিশুকে আমাকে গ্রহণ করতে হয় এবং তাদেরকে আগেই বন্ধ হয়ে যাওয়া উপরের তলার একটি কক্ষে নিয়ে যাই।

ইমিগ্রেশন, রিফিউজিস অ্যন্ড সিটিজেনশিপ কানাডা বলেছে, ছয়টি প্রদেশে তাদের চার হাজার হোটেল কক্ষ রয়েছে। অন্টারিওর ১৬টি হোটেলেই তাদের কক্ষ রয়েছে প্রায় আড়াই হাজার। যেখানে আশ্রয়প্রার্থীদের সাময়িক জায়গা দেওয়া হয়।

এক বিবৃতিতে সরকারের সংস্থাটি বলেছে, এ সমস্যার দীর্ঘমেয়াদি সমাধানে কাজ চলছে। এ নিয়ে তারা ক্ষতিগ্রস্ত প্রদেশ এবং মিউনিসিপালিটিগুলোর সঙ্গে কাজ করছে, যাতে করে প্রাদেশিক আশ্রয়কেন্দ্র ও চার্চগুলো থেকে তাদেরকে আইআরসিসির তহবিলে পরিচালিত হোটেলে সাময়িকভাবে স্থানান্তর করা যায়। তবে এ সমস্যার আর স্থায়ী সমাধান প্রয়োজন বলে জানান মিলার।

This article was written by Rezaul Haque as part of the LJI

- Advertisement -

Read More

Recent