শনিবার - মার্চ ২ - ২০২৪

কানাডার ইয়েলোনাইফ শহরে

কানাডার ইয়েলোনাইফ শহর | Credit derek stockadobecom

কানাডার ইয়েলোনাইফ শহরের সময় এখন বেলা ১.৩৩। ঠিক এ মুহুর্তে বাংলাদেশে এখন ১ জানুয়ারী ২০২৪ রাত ২.৩৩। আমার এখানে এখন বছরের অর্থাৎ ২০২৩ এর শেষ দিন। ভাবছি কিছু লিখি। সকাল ধরে এখানে প্রচুর ভারী তুষারপাত ছিলো, জানালার পাশে এক কাপ গরম চা হাতে বসে তা দেখছিলাম। প্রকৃতির কতো সৌন্দর্য আছে এটাও দেখার মতো এক ধরনের।

বেশ কিছু দিন লিখছিনা। অলসতা ভর করে মনে ও দেহে। মাঝে মাঝে মনে হয় একনাগাড়ে লিখি মনের যত কথা আছে। ১০/১২ দিন আগে এক শুক্রবারে অফিস থেকে বেরিয়ে গাড়ীতে ষ্টার্ট দিয়েছি অমনি ভীষন এক হাচ্ছি সেই সাথে Bronchospasm.আমি ডাক্তার বুঝতে দেরী হলোনা এ সংকেত। আমার সহকর্মী হায়দরাবাদের ছেলে আমার পাশে।

- Advertisement -

-তুমি ঠিক আছোতো?

-হ্যা।

আমি গাড়ী চালানো শুরু করলাম। ওকে আগে ওর বাসায় নামিয়ে নিজের বাসায় ফিরে এলাম। রাত বাড়ার সাথে সাথে গায়ে জ্বর বাড়তে শুরু করলো সেই সাথে হাচ্চি। ঔষধ খেলাম। রাত ৩টায় ঘুম ভাঙ্গলো প্রচন্ড অস্বস্থি। এভাবেই ৪ দিন চলে গেল। মাঝে এক দিন অফিস গেলাম। বাসায় ফিরে আবার খারাপ লাগলো জ্বর মনে হলো ফিরে এলো। আবারও দুদিন অফিস গেলাম না। আমার অনেক সিক লিভ জমেছে। একবারতো ৩০০ ঘন্টা সিক লিভ রেখে ইনুভিক থেকে চলে গিয়েছি।
Flu vaccine নিয়েছি আগেই তারপরও জ্বর, কাশি। আমি রীতিমতো শুনতে পাই আমার ফুসফুসের উপরের অংশে (Apex) শ্বাস প্রশ্বাসের সময় শো শো শব্দ হচ্ছে। আসলে যে ফ্লু শর্ট নিয়েছিলাম তা এই জ্বর বা ফ্লুর নির্যাতন কে কমিয়ে দিয়েছিলো আমার শরীরে। কোভিড টেষ্ট করে নিগেটিভ পেলাম। তারপর অফিস গেলাম। আমার মনে হয়েছিলো কোভিডের চাচতো ভাই আমাকে ধরেছিলো।

বাংলাদেশে বড় বোনকে ফোনে জানিয়েছিলাম সাথে অনুরোধ রেখেছিলাম যেন ভাই বোনদেরকে না জানায় কারণ তারা আমার জন্য চিন্তা করবে তার থেকে একা চুপ থাকা ভালো তবে কয়েকদিন পর আমার এক মেডিকেল সহপাঠি ও বর্তমানে আমার লেখার ভক্ত আমাকে টেক্সেটে লিখলো:

-তুমি ভালো আছোতো?

-না। সত্যিই আমি অসুস্থ্য। তুমি কি করে বুঝলে?

-আমি বুঝতে পারি একটু আধটু সাইকি করি।

সাইকির বিষয় আমি ভালো জানিনা তবে যারা অন্যকে নিয়ে ভাবে, নিজের ভালো মঙ্গলের সাথে অন্যের টাও বুঝতে পারে, আমার এই সহপাঠি হয়তো তাদের একজন।

অবশেষে আজ লিখতে বসলাম। আমার সব লেখা‌ই প্রিয় বাংলাদেশকে স্মরণ করে। সুন্দর একটি স্বপ্নের মতো সোনার বাংলা গড়তে সবাই হয়তো পরিশ্রম করছেন। স্বপ্ন দেখি প্রতিদিন ।

- Advertisement -

Read More

Recent