বৃহস্পতিবার - এপ্রিল ১৮ - ২০২৪

জরুরি আইন প্রয়োগ নিয়ে রায়ের বিরুদ্ধে অটোয়ার আপিল

২০২২ সালের ফ্রিডম কনভয় বিক্ষোভ দমনে জরুরি আইন ব্যবহারকে অন্যায্য বলে জানিয়েছে একটি ফেডারেল আদালত

২০২২ সালের ফ্রিডম কনভয় বিক্ষোভ দমনে জরুরি আইন ব্যবহারকে অন্যায্য বলে জানিয়েছে একটি ফেডারেল আদালত। এর বিরুদ্ধে আপিল আবেদন দাখিল করেছে অটোয়া।

সরকার ফেডারেল কোর্ট অব আপিলের কাছে জানুয়ারি মাসেই রায় বাতিলের আর্জি জানিয়েছে। জানুয়ারির ওই রায়ে বলা হয়েছে, সরকারের জরুরি আইন ব্যবহারের মধ্য দিয়ে সাংবিধানিক অধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে।

- Advertisement -

ওই বিক্ষোভ থামাতে ফেডারেল লিবারেলরা জরুরি আইনে প্রদত্ত ক্ষমতা প্রয়োগ করে। কানাডিয়ান সিভিল লিবার্টিজ অ্যাসোসিয়েশন ও অন্যরা আদালতে এই যুক্তি তুলে ধরে যে, পরিস্কার সংবিধিদ্ধ কারণ ছাড়াই অটোয়া জরুরি আইন চালু করে।

ফেডারেল কোর্টের বিচারপতি রিচার্ড মসলি তার সিদ্ধান্তের মাধ্যমে পাবলিক অর্ডার ইমার্জেন্সি কমিশনারের উপসংহারের সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করেন। লিবারেলরা তৎক্ষণাৎ ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করার প্রতিশ্রুতি দেয়।

কমিশনের তদন্তে বলা হয়, আইনটি প্রয়োগে সরকার খুবই উচ্চমানের আদর্শমান অনুসরণ করেছে।

২২ ফেব্রুয়ারি দাখিল করা আপিল আবেদনে সরকার তাদের যুক্তির একটি রূপরেখা তুলে ধরেছে। তাতে বলা হয়েছে, ঘটনার পরে কী হতে পারে তা এবং ২০২২ সালে সরকারের কাছে ছিল এমন তথ্যের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত পর্যালোচনার মাধ্যমে ফেডারেল আদালত ভুল করেছে। সরকারের কী সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত ছিল সে ব্যাপারে নিজের মত প্রতিস্থাপনের মাধ্যমেও ভুল করেছে আদালত। এর পরিবর্তে আদালতের উচিত ছিল আইনটি ফেরানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণের আগে সরকারের সামনে বিশ্বাস করার মতো যৌক্তিক ভিত্তি ছিল কিনা সে বিষয়টিতে নজর দেওয়া। জরুরি আইন ফিরিয়ে আনা কানাডিয়ান চার্টার অব রাইটস অ্যান্ড ফ্রিডমসের লঙ্ঘন বলে আদালত যে রায় দিয়েছে তা-ও ভুল বলে যুক্তি তুলে ধরেছে সরকার।

- Advertisement -

Read More

Recent