বৃহস্পতিবার - এপ্রিল ১৮ - ২০২৪

ছুরিকাঘাতে নিহত ছয়জনের জন্য অটোয়ায় শোক

ছুরিকাঘাতে নিহত ছয়জনের প্রতি চোখের জলে ফুল ও প্রার্থনা জানিয়ে শোক প্রকাশ করেছেন শোকস্তব্ধ অটোয়া এরিয়ার বাসিন্দা ও স্থানীয় শ্রীলঙ্কান কমিউনিটির সদস্যরা

ছুরিকাঘাতে নিহত ছয়জনের প্রতি চোখের জলে ফুল ও প্রার্থনা জানিয়ে শোক প্রকাশ করেছেন শোকস্তব্ধ অটোয়া এরিয়ার বাসিন্দা ও স্থানীয় শ্রীলঙ্কান কমিউনিটির সদস্যরা। নগরীর সাম্প্রতিক ইতিহাসে সবচেয়ে জঘন্য এই গণহত্যায় নিহতদের স্মরণ করতে ৯ মার্চ সমবেত হয়েছিলেন তারা।

বারহ্যাভেনের পালমাডিওয়ে বৃষ্টিস্নাত আকাশের নিচে সমবেত হয়েছিলেন শোকার্ত মানুষেরা। এই উপশহরেই এক তরুণ মা, তার চার সন্তান এবং একজন পারিবারিক বন্ধু ৬ মার্চ ছুরিকাঘাতে নিহত হন। নিহতদের সঙ্গে বসবাসকারী ১৯ বছর বয়সী এক শ্রীলঙ্কান নাগরিকের বিরুদ্ধে এই ঘটনায় হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে।

- Advertisement -

সমবেতদের মধ্যে অটোয়ার মেয়র মার্ক সাটক্লিফ, পুলিশ প্রধান এরিক স্টাবস এবং শ্রীলঙ্কান হাইকমিশনার উপস্থিত ছিলেন। সেখানে নিহতদের ফুল দিয়ে সম্মান জানানো হয় এবং তাদের জন্য প্রার্থনা করা হয়।

হিলদা জয়াবর্ধনারামায়া প্যাগোডায় পরিবারটি প্রার্থনা করতেন। সেখানকার আবাসিক ভিক্ষু ভান্তি সুনীথা বলেন, যারা কষ্টে আছেন, তাদের কষ্ট দূর হোক।

ছুরিকাঘাতে নিহত ছয়জন হচ্ছেন ৩৫ বছর বয়সী দর্শনী একনায়েকে, তার সাত বছরের ছেলে ইনুকা বিক্রমাসিংঘে, চার বছর বয়সী কন্যা অশ্বীনি, তিন বছর বয়সী ছেলে রণয়ানা ও দুই বছর বয়সী কেলি এবং পারিবারিক বন্ধু ৪০ বছর বয়সী জি জামিনি আমারাকুন। এ ঘটনায় বেঁচে যাওয়া একমাত্র ব্যক্তি হচ্ছেন শিশুদের পিতা ধানুস্কা বিক্রমাসিংঘে। হামলাকারীর আঘাতে আহত হয়ে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী হিসেবে কানাডায় আসেন এবং হত্যাকা-ের সময় পরিবারের সঙ্গে বসবাস করছিলেন।

কমিউনিটি নেতারা শোক সভায় বলেন, সারা দেশজুড়ে শ্রীলঙ্কান প্রবাসীরা মর্মান্তিক এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করছে। কমিউনিটিতে এ ধরনের কোনো কিছু ঘটনা তাদের জন্য কতটা অস্বাভাবিক সেটাও ব্যক্ত করেন তারা।

কমিউনিটির পক্ষে অনুষ্ঠানে কথা বলেন বুদ্ধিস্ট কংগ্রেস অব কানাডার পরিচালক নারাধা কোদিতুয়াক্কু। এ ঘটনায় প্রথম যারা এগিয়ে এসেছিলেন, নির্বাচিত কর্মকর্তা এবং অন্য যেসব সংস্থা পরিবারটির পাশে দাঁড়িয়েছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

- Advertisement -

Read More

Recent