শুক্রবার - মে ২৪ - ২০২৪

কানাডা সকারের আর্থিক অবস্থা টেকসই নয়

কানাডা সকারের নবনিযুক্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সিইও এবং সাধারণ সম্পাদক গভর্নিং বডির আর্থিক অবস্থা সংক্রান্ত একটি হালনাগাদ প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছেন

কানাডা সকারের নবনিযুক্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এবং সাধারণ সম্পাদক গভর্নিং বডির আর্থিক অবস্থা সংক্রান্ত একটি হালনাগাদ প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছেন। যে খবর প্রতিবেদনে দেওয়া হয়েছে তা সুখকর নয়।

১৪ মার্চ দায়িত্ব নেওয়া কেভিণ ব্লু বলেন, গভর্নিং বডি ২০২৪ অর্থবছরের জন্য যে বাজেট দিয়েছে তাতে মোট ৩ কোটি ডলার ব্যয়ের কথা বলা হয়েছে। এখানে পরিচালন ঘাটতি রয়েছে ৪০ লাখ ডলার। বার্ষিক পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে যেকোনো অলাভজনক প্রতিষ্ঠানের উদ্বৃত্ত বা ঘাটতিতে পরিচালিত হওয়া স্বাভাবিক হলেও কানাডা সকারের পরিচালন ঘাটতি টেকসই নয়। ভবিষ্যতে এটা অব্যাহত থাকতে পারে না। ৩০ মার্চ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে তিনি এ কথা জানান।

- Advertisement -

কানাডা সকার এখন পর্যন্ত তাদের ২০২৩ সালের আর্থিক চিত্র তুলে ধরেনি। মে মাসের গোড়ার দিকে মন্ট্রিয়লে অনুষ্ঠেয় বার্ষিক সাধারণ সভায় তা তুলে ধরা হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

ব্লু বলেন, কর্মসূচি এবং তৃণমূল থেকে জাতীয় পর্যায়ের সব দলকে সেবা দিতে হলে কানাডা সকারকে বার্ষিক রাজস্ব ১ কোটি থেকে ১ কোটি ২০ লাখ ডলারের মধ্যে বাড়াতে হবে। কানাডায় সকারের জন্য উন্নত আর্থিক ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে আমাদের, যাতে করে আসন্ন সুযোগগুলো থেকে আমাদের স্পোর্ট সুবিধা ঘরে তুলতে পারে।

প্রস্তাবিত সমাধানের মধ্যে একটি হলো খেলোয়াড়দের ফি বাড়ানো। ব্লু বলেন, এজন্য তিনি সম্ভাব্য পরিকল্পনা হাজির করেছেন, ২০১৭ সাল থেকে যাতে কোনো পরিবর্তন আসেনি।

প্রথমটি হচ্ছে ফিকে ভোক্তা মূল্যসূচকের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করা। ব্লু বলেন, ২০১৭ সাল থেকে এটা করা হলে কানাডা সকার অতিরিক্ত ৫৮ লাখ ৪০ হাজার ডলার আয় করতে পারত।

দ্বিতীয় ধারণাটি হলো সাবেক কানাডিয়ান ইন্টারন্যাশনাল ডিয়ানা ম্যাথেসন ও জাতীয় যুবদলের নির্মাণাধীন দেশীয় উইমেন’স লীগ প্রজেক্ট ৮ চালুর জন্য অর্থায়নে পর্যায়ক্রমে বর্ধিত বিনিয়োগ। এটা সময়োপযোগী এবং কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ বিনিয়োগ।

৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০২২ হিসাব বছরে কানাডা সকারের রাজস্ব ছিল ৪ কোটি ৭৬ লাখ ডলার, যার মধ্যে খেলোয়াড়দের ফি ৬৬ লাখ ডলার। ওই বছর ঘাটতি ছিল ৬৩ লাখ ডলার। ২০২২ সালে মোট ব্যয় ছিল ৫ কোটি ৩৯ লাখ ডলার। দীর্ঘ কানাডিয়ান মেন’স ওয়ার্ল্ড কাপ কোয়ালিফাইং ক্যাম্পেইনের কারণেই এই ঘাটতি তৈরি হয়।

- Advertisement -

Read More

Recent