শুক্রবার - জুলাই ১৯ - ২০২৪

টরন্টোতে অসুস্থ্য রাকুনের সংখ্যা বাড়ছে

টরন্টোতে অসুস্থ্য ও আহত প্রাণীর সেবা চেয়ে কলের সংখ্যা বাড়ছে

টরন্টোতে অসুস্থ্য ও আহত প্রাণীর সেবা চেয়ে কলের সংখ্যা বাড়ছে। এসব প্রাণীর বেশিরভাগই রাকুন। এর পেছনে একটা কারণ হতে পারে ভাইরাস, যা তাদের ওপর বড় ধরনের প্রভাব ফেলছে।

টরন্টো অ্যানিমেল সার্ভিসেসের (টিএএস) তথ্য অনুযায়ী, ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত মৃত প্রাণী সংগ্রহের জন্য ২ হাজার ৮৫১টি কল পেয়েছে তারা। অসুস্থ্য ও আহত প্রাণীর শুশ্রুসা চেয়ে ফোন পেয়েছে ৩ হাজার ৭১৬টি। ২০২২ সালের একই সময়ে যেখানে এ ধরনের সেবার জন্য ফোন এসেছিল যথাক্রমে ২ হাজার ৮৩ ও ৩ হাজার ৭১৬টি।

- Advertisement -

টিএএস বলেছে, এসব কলের ৯০ শতাংশই রাকুৃন সম্পর্কিত। মৃত এবং অসুস্থ্য ও আহত প্রাণীর ব্যাপারে সহায়তা চেয়ে কলে সংখ্যাও ২০২৩ সালে বেড়েছে। বছরটিতে মৃত প্রাণীর ব্যাপারে সেবা চেয়ে ফোন করা হয় ৩ হাজার ৩৭২টি এবং অসুস্থ্য ও আহত প্রাণী সম্পর্কিত ৫ হাজার ৩৬০টি।

ঠিক কী কারণে রাকুন অসুস্থ্য ও জখম হচ্ছে তা জানা যায়নি। তবে সিটির একজন মুখপাত্র শেন জেরার্ড বলেন, ক্যানাইন ডিস্টেম্পার ভাইরাস (সিডিভি) এর অন্যতম কারণ। সিডিভির কারণে রাকুন অসংলগ্ন আচরণ করে ও সিন্তেজ হয়ে পড়ে, যা তাদেরকে অন্ধত্বের দিকে নিয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত তারা লক্ষ্যহীনভাবে ঘোরাঘুরি করে এবং কখনো কখনো আগ্রাসী আচরণও করে। এ ছাড়া ভাইরাসটিতে আক্রান্ত রাকুন লোকজনের কাছে চলে আসে অথবা মানুষের কাছাকাছি উন্মুক্ত স্থানে ঘুমায়। অন্যান্য উপসর্গের মধ্যে রয়েছে চোখ ও নাক দিয়ে শ্লেষা বের হওয়া, যার সঙ্গে থাকে কাশি, কাঁপুনি।

কোনো রাকুনকে অস্বাভাবিক আচরণ করতে দেখলে বাসিন্দাদের প্রতি ৩১১ নাম্বারে ফোন করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

- Advertisement -

Read More

Recent