সোমবার - জুন ১৭ - ২০২৪

বুস্টার ডোজ ও ওমিক্রন

বুস্টার ডোজ ভ্যাকসিন নিচ্ছেন অন্টারিওর স্বাস্থ্যমন্ত্রী ক্রিস্টিনা এলিয়ট

ওমিক্রন সম্পর্কে বলা হচ্ছে, এর সংক্রমণ ক্ষমতা অনেক গুন বেশী কিন্তু Severity কম। আবার বলা হচ্ছে, দুই ডোজ ভ্যাক্সিনে কাজ হবে না, বুস্টার ডোজ নিতে হবে।
কেউ কেউ বলতে পারেন severity কম হলে ওমিক্রনে ভয়ের কি আছে? severity কম হলে ওমিক্রনের জন্য বুস্টার ডোজও বা নিতে হবে কেন?
অনেকের কাছে বিষয়গুলি বেশ গোলমেলে ঠেকতে পারে।
আসলে গোলমেলের কিছু নেই। সংক্রমনশীলতা বেশি হলে বেশি মানুষ আক্রান্ত হবে।
যাদের দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা immunity খুব দুর্বল, তারা এত দিন সংক্রমণ কম হবার কারনে আক্রান্ত হওয়া থেকে নিজেদেরকে রক্ষা করতে পেরেছেন কিন্তু এখন সংক্রমণ অনেক গুন বেশি হবার কারনে নিজেদেরকে আক্রান্ত হওয়া থেকে রক্ষা করার space কমে আসবে। সংক্রমণ বেশী হবার কারনে তাদের আক্রান্ত হবার ঝুঁকি বৃদ্ধি পাবে। ফলে দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার অধিকারী যারা তাদের মৃত্যুর হার বৃদ্ধি পাবে। সংক্রমণের পরিধি বৃদ্ধি পাবার কারনে দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার অধিকারীদের আক্রান্ত হবার পরিধিও বৃদ্ধি পাবে।
এবার আসা যাক দ্বিতীয় প্রশ্নটিতে, বুস্টার ডোজ লাগবে কেন?
পুরো কানাডার জনসংখ্যা ৩৮ মিলিয়ন আর অন্টারিওর জনসংখ্যা ১৪ মিলিয়ন। এই এত জনসংখ্যার মধ্যে কার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি আর কার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম বা দুর্বল তা নির্ধারণ করা সম্ভব নয়। শুধুমাত্র ধারনা করা সম্ভব যারা বয়স্ক, যাদের ক্রনিক ডিজিস আছে, যারা ডায়াবেটিক, যাদের হৃদরোগ, কিডনির সমস্যা আছে, সেই সব ব্যক্তিদের সাধারণত রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম বা দুর্বল। এই শ্রেণীর বাইরেও আপাতদৃষ্টিতে খুব সুস্থ্য সবল মানুষের মধ্যেও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকতে পারে। এত জনসংখ্যার মধ্যে বিষয়টি সনাক্ত করা সম্ভব নয়। আর এই কারনেই বুস্টার ডোজ নেওয়ার প্রশ্নটি এসে যায়। জনসংখ্যার ৮০% থেকে ৯০% কে বুস্টার ডোজ দেওয়ার মাধ্যমে মৃত্যুর ঝুঁকি থেকে বাচানো সম্ভব।
ওমিক্রনকে ভয় পেতে হচ্ছে এর বহুগুন সংক্রমণশীলতার কারনে। সংক্রমণ যত বেশী হবে আক্রান্তও তত বেশী হবে,মৃত্যুও তত বেশী হবে। হিসাবটা এখানেই।

- Advertisement -

Read More

Recent