শুক্রবার - জুলাই ১৯ - ২০২৪

সাকিব খানের মুভির টিজার

সাকিব খানের মুভির টিজার

সাকিব খানের মুভির টিজারের রিভিউ আমার আগে কখনো দেওয়া হয় নাই । এই প্রথম সাকিব খানের মুভির টিজার নিয়ে কিছু কথা শেয়ার করতে চাচ্ছি।

অনেকের মত আমিও তুফান মুভি নিয়ে বেশ আগ্রহী ছিলাম। সাকিব খানের জন্য আগ্রহ না, আগ্রহটা হচ্ছে আমাদের দেশে ভালো মানের গ্যাংস্টার মুভি হতে যাচ্ছে, যেখানে ভরপুর অ্যাকশন ক্রাইম থ্রিলার থাকবে। সাকিব খান মুভির প্রধান লিড রোলে আছে সেটার জন্য মুভির ইমেজ এমনিতেই বহু গুনে বেড়ে গিয়েছে। টিজার দেখার পর মনে হলো তুফান মুভিতে সাকিব খানের জায়গায় অন্য কাউকে কাস্ট করলেও মুভি চলতো কিন্তু অতটা হাইপ উঠত না। সাকিবের উপস্থিতি সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিয়েছে।

- Advertisement -

ডিরেক্টর যেহেতু রায়হান রাফি তাই ভরসা করা যায়।ভালো মানের ডিরেক্টর এর হাতে পড়লে অভিনেতাদের মধ্যে পরিবর্তন আসবেই।সাকিবের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। বিগত পাঁচ/ দশ বছরের আগের সাকিব এখন নেই। কিছুটা হলেও পরিবর্তন আসছে।এই পরিবর্তনকে আমি ব্যাক্তিগত ভাবে পছন্দ করেছি তাই এটা আমি দেখবো।।

মুভির নায়িকা কে সেটা কোন বিষয় না। একজন প্রতিষ্ঠিত নায়কের সাথে একটা নায়িকা হলেই চলে। তবে চঞ্চল চৌধুরীর হাসি আরো টান টান উত্তেজনা সৃষ্টি করলো। শাহরুখের জাওয়ানে ডিরেক্টর এটলির যেমন বাজিমাত করেছে ঠিক তেমনি রায়হান রাফি বাজিমাত করবে। আমাদের এটলি, রাজমৌলী নেই তো কি রায়হান রাফি কোন অংশে কম না।।

পৃথিবীর সব গ্যাংস্টার মুভিতে অ্যাকশন স্টাইল ঐ ঘুরে ফিরে একই রকম। তবে এক এক দেশের কালচার অনুযায়ী গ্যাংস্টার প্লট ভিন্ন হয়ে থাকে। আমেরিকান গ্যাংস্টার মুভির সাথে ইতালি জার্মান গ্যাংস্টার মুভি মিলবে না,আবার কোরিয়ান গ্যাংস্টার মুভির সাথে তাদের মিলবে না। কারণ এক এক দেশের অপরাধের সাম্রাজ্যের ধরনের ভিন্ন।

আমাদের এই উপমহাদেশের গ্যাংস্টার মুভির ধরন অনেকটা একই রকম। যেহেতু ইন্ডিয়ান পাকিস্তান বাংলাদেশের কালচার কিছুটা কম বেশী মিল আছে তাই মুভিতে ইন্সপায়ারড বিষয়টা ইন্ডিয়ান থেকেই বেশি নেওয়া হয়। অ্যানিমাল মুভির রনবীরের লুক ফলো করতেই পারে। সাকিবকে ভালই লগেছে। এখন সাকিব যদি কোরিয়ান বা আমেরিকান ভিলেনদের মত লুক দিতো তাহলে খুব বেশি কি ভালো লাগতো??

তবে তুফান মুভি নব্বই দশকে আন্ডারওয়ার্ল্ড প্লটে নির্মিত। মুভিতে আরো বড় বড় অভিনেতারা আছেন এটা জানি। মুভিটি ভালো হতে যাচ্ছে। রেকর্ড ব্রেকিং হবে আশা করি।।

হলে গিয়ে দেখার ইচ্ছা আছে কিন্তু স্ত্রী অসুস্থ। যেহেতু হলে অনেক সাউন্ড থাকে তাই প্রেগনেন্ট অবস্থায় উনার হলে মুভি দেখা ঠিক হবে কিনা জানি না।কেউ জানলে জানাবেন।।

- Advertisement -

Read More

Recent