শুক্রবার - জুলাই ১৯ - ২০২৪

চলার সাথে থেমে থাকা

চলার সাথে থেমে থাকা

ঠিক, দুপুর বেলা তুমি কি করো?
রোদের আলো থেমে যায় পাতার গায়ে, পাতারা ঝিম মেরে যায় ক্লান্তিতে।
দূরের যাত্রী নিয়ে ট্রেনটা শুধু হুইসেল বাজায় একটানা।
অনেক আগে দুপুর মধুঘোরে মাতিয়ে কে যেন বাঁশি বাজাত।
ছুটতে ছুটতে সে সব মনে পরছে-
তোমার কথা মনে পরছে।
কতদিন দেখা হয় না।
আমাদের দূরন্ত হাসির শব্দ
আকাশ বাতাস কাঁপায় না
চিঠি লেখা হয় না।
সব খবর ভালো তো?
তিথি মিলনের সঙ্গমে,
কষ্ট দেয়া ব্যাথাটা কি এখনও জেগে উঠে ?
তখন লাল মরিচ ডলে তোমার খুব পুটি মাছ খেতে ইচ্ছে হতো।
আমার খুব হাসি পেত;
ব্যাথার সাথে পুটি মাছ বা লাল মরিচের কি সম্পর্ক।
ফিক করে হেসেই উঠলাম জনারণ্যে পথ চলতে।
পাশের মানুষটি অবাক চোখে দেখল আমাকে
এক মূহুর্ত! সে দেখা হৃদয়ে গেঁথে থাকবে
মাঝে মধ্যে চোখ দুটো মনে পরবে।
সম্পর্কগুলো ভীড়ের মাঝে, বেড়ে উঠে
একটা ছেড়ে অন্য রাস্তায় পা ফেলার মতন
দৃশ্যপট থেকে সম্পর্ক।
রাস্তার সাথে পথের সাথে দৃশ্য যেমন বদলে যায়
তেমন কেবল বদল হতে থাকে।
হাত বদল হওয়া বস্তুর মতন।
খুব মনে পরা, কাছে থাকা মানুষ থেকে
প্রতিদিন আরো দূরে চলে যাই-
প্রতিদিন নতুন কিছু পথের মতই; নতুন মুখের সাথে চলা।
বয়সের সাথে, মনের বয়স কতটা বাড়ে বোঝার চেষ্টা করি।
ঝিম দুপুর সময়টা সব সময় একই লাগে
ঘুঘু ডাকা বা ট্রেনের হুইসেল বা বাঁশির শব্দের পার্থক্য যদি না খুঁজি।
মাঝে মাঝে কেবল দুপুর হয়ে থাকতে ইচ্ছে করে।

- Advertisement -

Read More

Recent