বুধবার - ফেব্রুয়ারি ২১ - ২০২৪

নতুন বছরে চোখ থাকবে যেসব বিলে

বলা হচ্ছে হাউস অব কমন্স এখনো ৫৪টি প্রস্তাবিত আইন নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে এর মধ্যে ২১টি বিল উত্থাপন করেছেন ফেডারেল মন্ত্রীরা সেনেটের হাতে আছে ৪৮টি এর মধ্যে পাঁচটি সরকারি বিল

দীর্ঘ শীতকালীন বিরতিতে গেছে সংসদ। কিন্তু টেবিলে ১০০ এর বেশি বিল রয়েছে এবং জানুয়ারির শেষ দিকে আইনপ্রণেতারা সংসদে ফিরলে সেগুলো বেছে নেওয়া হবে।

এসব বিলের মধ্যে কিছু রয়েছে লিবারেলদের অগ্রাধিকার। অন্যগুলো সরকারের প্রতিশ্রুতি। ডজনখানেক বিল প্রস্তাব করেছেন ইন্ডিভিজুয়াল সেনেটর বা সংসদ সদস্যরা। এগুলোর মধ্যে কিছু বিল তুমুল বিতর্ক সত্ত্বেও আইনে পরিণত হওয়ার অবস্থায় রয়েছে।

- Advertisement -

বলা হচ্ছে, হাউস অব কমন্স এখনো ৫৪টি প্রস্তাবিত আইন নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে। এর মধ্যে ২১টি বিল উত্থাপন করেছেন ফেডারেল মন্ত্রীরা। সেনেটের হাতে আছে ৪৮টি। এর মধ্যে পাঁচটি সরকারি বিল।
২০২৩ সালের গুরুত্বপূর্ণ বিলগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো বিল সি-১১ বা অনলাইন স্ট্রিমিং অ্যাক্ট। বিলে ইউটিউব, টিকটক ও স্পোটিফাইয়ের মতো বৃহৎ স্ট্রিমিং প্ল্যাটফরমগুলোর জন্য সম্প্রচার নিয়মে পরিবর্তন আনা হতে পারে। বিলটি পাসের ছয় মাস পর সেনেটররা গুরুত্বপূর্ণ সংশোধনী দিয়েছেন।

আরেকটি হচ্ছে ২০২২ সালের মার্চে উত্থাপন করা অফিসিয়াল ল্যাঙ্গুয়েজ অ্যাক্ট, যা বিল সি-১৩ নামে পরিচিত। বিলটি ভাষা আইন শক্তিশালী করবে এবং ফ্রেঞ্চ ভাষা সংরক্ষণ ও উৎসাহিত করতে সরকারকে বাধ্য করবে।
বিল সি-১৮ নামে পরিচিত অনলাইন নিউজ অ্যাক্টের ফলে গুগল ও মেটার মতো টেক জায়ান্টরা কানাডিয়ান গণমাধ্যমের খবর শেয়ারের বিনিময়ে তাদেরকে অর্থ পরিশোধ করবে। ছুটির বিরতির মাত্র কিছুদিন আগে সংসদে বিলটি পাস হয়েছে।

আগ্নেয়াস্ত্র সংক্রান্ত বিল সি-২১ নির্দিষ্ট আগ্নেয়াস্ত্র সম্পর্কিত অপরাধেল জন্য শাস্তি কঠোর করবে। বিল সি-২২ নামে পরিচিত কানাডা ডিসঅ্যাবিলিটি বেনিফিট আইন পাস হয়েছে গগত জুনে। আইনটির আওতায় নতুন ডিসঅ্যাবিলিটি বেনিফিটের সুযোগ তৈরি হবে।

আরও যেসব বিলের দিকে চোখ থাকবে তার মধ্যে আছে বিল সি-২৭, বিল সি-২৯, বিল সি-৩৫, বিল এস-৫, বিল সি-২১৫, বিল সি-২২৬, বিল সি-২৩৩, বিল সি-২৪৮, বিল সি-২৯১, বিল এস-২১০ এবং বিল এস-২১১।

This article was written by Rezaul Haque as part of the LJI

- Advertisement -

Read More

Recent