বৃহস্পতিবার - এপ্রিল ১৮ - ২০২৪

এসএনসি লাভালিনের ইস্যুতে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ তদন্ত করছে না আরসিএমপি

২০১৫ সালে এসএনসি লাভালিন গ্রুপ এবং এর দুই সহযোগী প্রতিষ্ঠান এসএনসি লাভালিন কনস্ট্রাকশন ও এসএনসি লাভালিন ইন্টারন্যাশনালের বিরুদ্ধে বিদেশি সরকারি কর্মকর্তাদের ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ ওঠে

প্রকৌশল প্রতিষ্ঠান এসএনসি-লাভালিনের বিরুদ্ধে দায়ের করা ফৌজদারি অভিযোগ ফেডারেল দেখভালে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের তদন্ত হচ্ছে না বলে জানিয়েছে রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্ডেট পুলিশ (আরসিএমপি)। এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে আরসিএমপি।

২০১৫ সালে এসএনসি-লাভালিন গ্রুপ এবং এর দুই সহযোগী প্রতিষ্ঠান এসএনসি-লাভালিন কনস্ট্রাকশন ও এসএনসি-লাভালিন ইন্টারন্যাশনালের বিরুদ্ধে বিদেশি সরকারি কর্মকর্তাদের ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। লিবিয়ায় ব্যবসায় জালিয়াতির অভিযোগও ওঠে তাদের বিরুদ্ধে। বিশেষ মীমাংসার জন্য এসএনসি-লাভালিন প্রসিকিউশনের পরিচালককে চাপ দিলেও তাতে সফল হয়নি। ফৌজদারি অভিযোগ প্রমাণিত হলে তারা এক দশক বিদেশি চুক্তির জন্য অয্গ্যো বিবেচিত হবে এই আশঙ্কা থেকে কাজটি করেছিল তারা।

- Advertisement -

২০১৯ সালের গোড়ার দিকে গ্লোব অ্যান্ড মেইল পত্রিকা এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করে, তখনকার ফেডারেল অ্যাটর্নি জেনারেল জোডি উইলসন-রেবোল্ডের সঙ্গে বিচার এড়াতে একটি সমঝোতার বিষয়ে জানতে পারেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তারা। এর পরদিনই উইলসন-রেবোল্ড পদত্যাগ করেন এবং পরবর্তীতে লিবারেল ককাস থেকে তাকে বের করে দেওয়া হয়।

২০১৯ সালের আগস্টে ফেডারেল এথিকস ওয়াচডগ এই উপসংহারে পৌঁছায় যে, প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বিষয়টি যেভাবে সামাল দিয়েছেন তাতে কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট আইন লঙ্ঘিত হয়েছে।

এ সংক্রান্ত এক প্রশ্নের উত্তরে জাতীয় পুলিশ বাহিনী কানাডিয়ান প্রেসকে জানিয়েছে, হস্তক্ষেপের অভিযোগ নিয়ে তাদের আন্তর্জাতিক তদন্ত ইউনিট একটি মূল্যায়ন করেছে। সেটা পর্যালোচনার অংশ হিসেবে আরসিএমপি বিভিন্ন সূত্রের সঙ্গে কথা বলেছে এবং পুক্সক্ষানুপুক্সক্ষ, নির্ব্যক্তিকভাবে এবং পেশাদারিত্বের বিষয়টি পরীক্ষা করেছে। পূর্ণাঙ্গ নিরপেক্ষ মূল্যায়ন শেষে আরসিএমপি এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে যে, ফৌজদারি অপরাধ প্রমাণ করার মতো পর্যাপ্ত প্রমাণের ঘাটতি রয়েছে এবং ফাইলটি বন্ধ করেছে।

- Advertisement -

Read More

Recent