রবিবার - জুলাই ১৪ - ২০২৪

এন্ড্রু কিশোর : অমিয় ব্যবহারের এক অমিত মানুষ

সেদিন হোটেল রুমে বাবু ভাইয়ের সাথে বলতে বলতেই তারকা শিল্পী এন্ড্রু কিশোর এলেই আমাকে পরিচয় করিয়ে দিলেন বাবু ভাই এতটুকুই

মেরুনা তখন সন্ধ্যার শিফটে কাজে। তেমন রান্না নেই তাতেও মনে হলো হয়ে যাবে, দুজনে গপ্পো করে খেয়ে নেয়া যাবে যা আছে যতটুকু আছে। আরন্যক নাট্যদলের ফজলুর রহমান বাবু ভাই এসেছেন এই শহরে গান করতে। ২০০৯ সালের দুর্গাবাড়ির শারদীয় উৎসবে। সে বলেছে বাসায়ও আসবে। আর তাই গেলাম হোটেল রুমে তাকে আনতে। রুমে বসে কথা বলছি আর সে প্রস্তুতি নিচ্ছে। সদ্য স্নান সমাপন করেছেন তিনি।

কোন তারকার সাথে উপযাজক হয়ে কথা বলিনা। ইচ্ছেও করে না। এমনকি অনেক ভাললাগার তারকার সাথেও এবং সে যেই হোক না কেন। বদ অভ্যাস বা খামোখা ভাব হতে পারে। আসলে ইচ্ছে করে না। তবে চোখে চোখে কথা হলে কিংবা কেউ পরিচয় করিয়ে দেবার কারণ থাকলে ভাব বিনিময় করি। সম্পর্ক তখন গড়ায়। তা নাহলে সসম্মানে এড়িয়ে চলি।

- Advertisement -

সেদিন হোটেল রুমে বাবু ভাইয়ের সাথে বলতে বলতেই তারকা শিল্পী এন্ড্রু কিশোর এলেই আমাকে পরিচয় করিয়ে দিলেন বাবু ভাই । এতটুকুই।

তারপর বাবু ভাই প্রস্তুত হবার পর এন্ড্রু কিশোর নিজে থেকেই বলে উঠলেন, আমাকে নিবেন না। শুনেই বিস্ময় লাগে! তারকা শিল্পী বলেন কি! একরাশ মুগ্ধতা নিয়ে তাঁকে নিয়ে ৩০ ডেন্টন এভিনিউতে চলে এলাম।

সত্যি, সে রাতে তিনি বাসায় এলেন, বাসায় অনেক রাত পর্যন্ত গল্প করলেন। সিডি উপহার দিলেন। কাজের শেষে মেরুনা ফিরে এলে ডাল ভাত গরম হলো।খাওয়া দাওয়া হলো।

পরেরদিন শো। দাদা কেন জানি আঁচ করেছেন তৎকালীন দুর্গাবাড়ির পরিচালনা পর্ষদ এর সাথে আমার যৎকিঞ্চিত আছে সু-সম্পর্ক। তাই তিনি চাচ্ছিলেন আমি থেকে যেন তাঁর সম্মানীটা শোর আগে তাঁর হাতে দেয়ার সময়ে থাকি। সেবার শক্তিদা, সুশীতলদা আর আশীষ পালদার সাথে লেগে থেকে দেখেছি তিনি কাঙ্খিত পূর্ণসম্মানী হাতে পেয়েছেন।

কাঁধে হাত রেখে ভালবাসায় স্নেহের বন্ধনে উজার করে দিয়েছিলে বাংলাদেশের গানের মহারাজা একজন এন্ড্রু কিশোর।

পাঁচ ছয় মাস আগে জাহিদ ভাইয়ের তাগাদায় কয়েকবার ছোট ছোট মিটিং করেও ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও এন্ড্রু কিশোর এর জন্যে কিছুই করতে পারিনি বলে খুব কষ্ট লাগছে এখন। প্রতিদিন এ কষ্টে সে কষ্টে সর্বংসহা হয়ে উঠছি আপাদমস্তক।

সেই যে সম্পর্কের শুরু,

নিরহংকার এই কিংবদন্তি শিল্পী মৃত্যুতেই শেষ করেননি। এতগুলো বছর তিনি যত্ন করেছেন। খোঁজ খবর নিয়েছেন। সম্পর্কটা মলিন হতে দেননি।

আজ তিনি দূর আকাশের তারা হয়েছেন। সেখান থেকেই দেখছেন তাঁর জন্য অগণিত ভক্ত স্বজনদের হাহাকার।

এমন নক্ষত্রের জীবনের গল্পগুলো

অল্প থাকে না।

থাকে পরিপূর্ণ।

দাদা, যেখানে থাকুন ভালো থাকবেন।

এন্ড্রু কিশোর এর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করি।

- Advertisement -

Read More

Recent