সোমবার - জুন ১৭ - ২০২৪

কানাডিয়ানদের মধ্যে বাড়ির সহ-মালিকানার প্রবণতা বাড়ছে

কানাডাজুড়ে সম্ভাব্য ক্রেতাদের কাছে বাড়ির দাম ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে এ কারণে পরিবার অথবা বন্ধুদের সঙ্গে যৌথ মালিকানার ভিত্তিতে বাড়ি ক্রয়ের প্রবণতা বাড়ছে

কানাডাজুড়ে সম্ভাব্য ক্রেতাদের কাছে বাড়ির দাম ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। এ কারণে পরিবার অথবা বন্ধুদের সঙ্গে যৌথ মালিকানার ভিত্তিতে বাড়ি ক্রয়ের প্রবণতা বাড়ছে। রয়্যাল লাপেজের সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় এমনটাই উঠে এসেছে।

লেজার পরিচালিত সমীক্ষায় দেখা যায়, কানাডার মোট বাড়ির মালিকদের ৬ শতাংশ স্বামী-স্ত্রী বা পার্টনারের বাইরে অন্যদের সঙ্গে ভাগাভাগি করে বাড়ি কিনেছেন। এক্ষেত্রে ক্ষয়ক্ষমতাকে প্রধান কারণ বলে মন্তব্য করেছেন সমীক্ষায় অংশ নেওয়া ৭৬ শতাংশ কানাডিয়ান।

- Advertisement -

সমীক্ষা অনুযায়ী, ২৫ থেকে ৩৪ বছর বয়সীদের মধ্যে যৌথ মালিকানার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৩ শতাংশে। ক্রয়ক্ষমতার সংকটের কারণে যৌথভাবে বাড়ি ক্রয়ের সিদ্ধান্ত যারা নিচ্ছেন তাদের এক-তৃতীয়াংশ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ২০২২ সালের মার্চে ব্যাংক অব কানাডা সুদের হার বাড়ানো শুরু করার পর।

যে ৬ শতাংশ কানাডিয়ান যৌথভাবে বাড়ির মালিক হয়েছেন তাদের বড় অংশ অর্থাৎ ৮৯ শতাংশের অংশীদার পরিবারের সদস্যরা। ৭ শতাংশ কানাডিয়ান বাড়ি কিনেছেন বন্ধুদের সঙ্গে যৌথভাবে।

রয়্যাল লাপেজের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা কারেন ইয়োলেভস্কি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন, বিভিন্ন প্রজন্মের মানুষের এক ছাড়ের নিচে থাকা নতুন কোনো প্রবণতা নয়। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে। শুমারির তথ্য বলছে, বহু প্রজন্মভিত্তিক পরিবার এই মুহূর্তে কানাডার সবচেয়ে বর্ধিষ্ণু পরিবার। বিভিন্ন কারণে পরিবারগুলো একসঙ্গে থাকে। এর মধ্যে বাবা-মায়ের দেখাশোনা যেমন রয়েছে, একইভাবে রয়েছে সন্তান লালন-পালন, সাংস্কৃতিক অগ্রাধিকার এবং শুধুই একসঙ্গে থাকার ইচ্ছা।

কোনো বাড়িতে লজিস্টিকস ভাগাভাগি করার ক্ষেত্রে দেখা যায়, ৪৪ শতাংশ মালিক সহ-মালিকের সঙ্গে থাকেন। এইভাবে থাকেন না ২৮ শতাংশ সহ-মালিক। সহ-মালিকদের ৬ শতাংশ জানিয়েছেন, তারা বা তাদের সহ-মালিকদের কেউই যৌথ মালিকানার বাড়িটিকে প্রাথমিক আবাস হিসেবে ব্যবহার করেন না। বিনিয়োগের জন্য বা মৌসুমী অথবা বিনোদনের কাজে বাড়িটি ব্যবহার করে থাকেন।

- Advertisement -

Read More

Recent