শনিবার - মার্চ ২ - ২০২৪

হল্টন পুলিশের ১৩০টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

১ জুন শুরু হওয়া সাধারণ ক্ষমার আওতায় ১৩০টির বেশি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে হল্টন পুলিশ

১ জুন শুরু হওয়া সাধারণ ক্ষমার আওতায় ১৩০টির বেশি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে হল্টন পুলিশ। ফায়ারআর্ম অ্যান্ড উইপন কর্মসূচির আওতায় হল্টন রিজিয়নে বসবাসকারী ব্যক্তি এবং এখানে অবস্থিত বা পরিচালিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো অবৈধভাবে অর্জিত আগ্নেয়াস্ত্র পুলিশের কাছে ফেরত দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। এর ফলে তাদেও বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ বা ফৌজদারি অভিযোগ আনা হবে না।

এই কর্মসূচির আওতায় হল্টনের বাসিন্দা ও এখানকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকরা এখন পর্যন্ত ১৩০টি আগ্নেয়াস্ত্র, গোলাবারুদ ও অন্যান্য অস্ত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে ৪২টি রাইফেল, ৩৮টি শটগান, সাতটি ইমিটেশন আগ্নেয়াস্ত্র, ১৯টি পেলেট গান, ১২টি পেলেট রাইফেল, ছয়টি নিষিদ্ধ হ্যান্ডগান, একটি নিষিদ্ধ রাইফেল, নয়টি নিয়ন্ত্রিত হ্যান্ডগান, ৫৬৮টি পাউন্ড গুলি, ২২টি ম্যাগাজিন, ৫৪টি চাকু, তরবারি ও তীর এবং আটটি নিষিদ্ধ অস্ত্র, যার মধ্যে আছে সুইচবেল্ড, বাটারফ্লাই নাইফ, ব্রাস নাকেল।

- Advertisement -

পুলিশ জানিয়েছে, বাসিন্দা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকদের অবৈধভাবে অর্জিত আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি অথবা অন্যান্য অস্ত্র ফেরত দিতে উৎসাহিত করতে সাধারণ ক্ষমার এই কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

আগ্নেয়াস্ত্রেও পাশাপাশি জননিরাপত্তায় হুমকি সৃষ্টি করতে এমন অস্ত্রও জমা দেওয়া যাবে। এসব অস্ত্রেও মধ্যে রয়েছে ইমিটেশন আগ্নেয়াস্ত্র ও এয়ার গান, সুইচব্লেড, বাটারফ্লাই নাইফ, পিপার স্প্রে, নানচাকু, সারিকেন, পুশ ড্যাগার, নাইফ কম, ক্রসবাউ, স্পাইকড রিস্টব্যান্ড, ব্যাটন এবং ব্লোগান।

- Advertisement -

Read More

Recent