শুক্রবার - মে ২৪ - ২০২৪

মানুষ মরেনি, এখনো আছে মহৎপ্রাণ

ছবি কৃতজ্ঞতা সাংবাদিক জুলহাস কবীর সুজন

প্রথম ছবির সাদা হুডিপরা ছেলেটির বয়স প্রায় ২৩/২৪ হবে। ভোলা জেলার বাসিন্দা ইব্রাহিম দুই বছর আগে গিয়েছিল প্যারিসে পড়াশুনোর উদ্দ্যেশ্যে। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, তাঁর ও পরিবারের সকল স্বপ্ন ধূলিসাৎ করে দিয়েছে মরণব্যাধি ক্যান্সার।

প্যারিসে যাবার মাস ছয়েকের মধ্যে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলে বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার পরে চিকিৎসকরা জানায়, ইব্রাহিমের টেস্টিকল ক্যান্সার হয়েছে। দীর্ঘ ১৪ মাস নিরবিচ্ছিন্ন চিকিৎসায় ইব্রাহিমের অবস্থার কোন পরিবর্তন হয়নি। ক্যান্সারের লাস্ট স্টেজে পৌঁছে গেলে ইব্রাহিম তাঁর চিকিৎসককে জানায়, দেশে ফিরে যেতে চায়। মায়ের কোলে মাথা রেখে মৃত্যুকে বরণ করার আকুতি শুনে ফরাসী চিকিৎসক ম্যাথিউ চ্যামেল্ট দম্পতি উদ্যোগী হয়ে ইব্রাহিমকে নিজ খরচে বাংলাদেশে নিয়ে আসেন।

- Advertisement -

ইব্রাহিমের সাথে ফরাসী চিকিৎসক ম্যাথিউ চ্যামেল্ট প্যারিস হতে ঢাকায় পুরো বিমানযাত্রায় সার্বক্ষণিক দেখভাল করেছেন।

ঢাকায় হজরত শাহজালাল (র:) বিমানবন্দরে অপেক্ষামান মা, বোন ও স্বজনদের কাছে ইব্রাহিমকে তুলে দেয়ার সময় ফরাসী চিকিৎসকের দু’চোখ জলে ভিজে গিয়েছিল। অসুস্থ ছেলের সাথে মায়ের পুর্নমিলনে বিমানবন্দরে আবেগঘন পরিবেশ সৃস্টি হয়।
পেশাগত দায়িত্বের সাথে অপূর্ব এক মানবিক দৃষ্ঠান্ত তৈরি করলেন ফরাসী চিকিৎসক। তিনি ইব্রাহিমের জন্য, আগামী কয়েকমাসের ঔষধ নিয়ে এসেছেন। যা বুঝিয়ে দিয়েছেন তাঁর পরিবারের সদস্যদের কাছে।

দ্বিতীয় ছবিতে রয়েছেন এই মহৎপ্রান ফরাসী চিকিৎসক ম্যাথিউ চ্যামেল্ট তাকে সশ্রদ্ধ সালাম।

২০.১২.২০২৩
মন্ট্রিয়েল

- Advertisement -

Read More

Recent