বৃহস্পতিবার - এপ্রিল ১৮ - ২০২৪

সরকারের সঙ্গে আংশিক চুক্তি অনুমোদন কুইবেকের দুই শিক্ষক ইউনিয়নের

প্রাদেশিক সরকারের সঙ্গে আংশিক চুক্তি অনুমোদন করার কথা জানিয়েছে কুইবেকের দুটি শিক্ষক ইউনিয়ন

প্রাদেশিক সরকারের সঙ্গে আংশিক চুক্তি অনুমোদন করার কথা জানিয়েছে কুইবেকের দুটি শিক্ষক ইউনিয়ন। শ্রমিক অসন্তোষ নিরসনে একে ছোট পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে। শ্রমিক অসন্তোষের কারণে আগামী প্রদেশের সরকারি সেবা ব্যাপকভাবে বিঘিœত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

দ্য ফেডারেশন ডেস সিন্ডিক্যাটস ডি লা’এনসাইনমেন্ট (এফএসই) এবং কুইবেক প্রভিন্সিয়াল অ্যাসোসিয়েশন অব টিচার্স ২২ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেছে, তাদের সদস্যরা পর্যালোচনা না করা এবং এর তাদের মতামত না দেওয়া পর্যন্ত প্রস্তাবিত চুক্তির ব্যাপারে বিস্তারিত তারা প্রকাশ করবে না।

- Advertisement -

প্রদেশের এক লাখের বেশি শিক্ষাকর্মীর প্রতিনিধিত্ব করে থাকে এই দুই ইউনিয়ন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা এক ভিডিওবার্তায় এফএসইর প্রেসিডেন্ট জোসি স্কালাব্রিনি বলেন, ছুটি শেষ না হওয়া পর্যন্ত পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পন্ন হবে না। প্রস্তাবিত চুক্তি কর্মপরিবেশ নিয়ে উদ্বেগ তৈরি করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে ঠিক কোন বিষয়টি এই উদ্বেগের জন্য দায়ী তা সুনির্দিষ্ট করে বলেননি তিনি।

সম্ভাব্য এই চুক্তিতে বেতনের বিষয়টি যে নেই সেটা স্পষ্ট করেছে ইউনিয়ন দুটি। বেতন ও অন্যান্য বিষয়গুলো লেবার গ্রুপগুলোর জোট কমন ফ্রন্টের আওতায় সরকারের সঙ্গে এখনো আলোচনার বিষয় হয়ে আছে। কমন ফ্রন্ট কুইবেক সরকারি খাতের ৪ লাখ ২০ হাজার কর্মীর প্রতিনিধিত্ব করে থাকে।

স্ক্যালব্রিনি ভিডিওবার্তায় বলেন, আমরা বলতে পারি যে, আমাদের একটা বড় অগ্রগতি হয়েছে।

কমন ফ্রন্ট অ্যালায়েন্স গত দুই মাসে একাধিক ধর্মঘট পালন করেছে। তারা বলেছে, প্রদেশের সঙ্গে চুক্তিতে পৌঁছাতে ব্যর্থ হলে আগামী বছর তারা চূড়ান্ত ধর্মঘটে যাবে।

৬৬ হাজার শিক্ষকের প্রতিনিধত্বকারী আরেক ইউনিয়ন ফেডারেশন অটোনোম ডি লা’এনসাইনমেন্ট (এফএই) ২৩ নভেম্বর থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে আছে। এই ধর্মঘটের ফলে প্রদেশের প্রায় ৮০০ স্কুল বন্ধ রয়েছে। এফএই বলেছে, তারা সরকারের সঙ্গে আলোচনা জোরদার করতে চায়। তবে আপাতত তারা নতুন বছরেও ধর্মঘট অব্যাহ রাখার পক্ষে।

This article was written by Rezaul Haque as part of the LJI

- Advertisement -

Read More

Recent