শুক্রবার - জুলাই ১৯ - ২০২৪

সেলুলয়েডের কবিতা টোপ

অসহায় মানুষকে কেউ কেউ কখনো টোপ হিসেবে ব্যবহার করে আবার কখনও নিজেরাই হয়ে যায় টোপের শিকার

ছুটির রাতে প্রতিদিনই নানান ভাষার সিনেমা দেখি। আজ দেখলাম বুদ্ধদেব দাশগুপ্তর সিনেমা টোপ।

অসহায় মানুষকে কেউ কেউ কখনো টোপ হিসেবে ব্যবহার করে। আবার কখনও নিজেরাই হয়ে যায় টোপের শিকার। শিকার আর শিকারির আশ্চর্য রোমহর্ষক সম্পর্ক , ছিন্নমূল মানুষদের অসহায়ত্ব এবং তাদের সাথে প্রতারণাকে উপজীব্য করে নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় লিখেছিলেন টোপ গল্প। এই গল্প নিয়েই বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত সিনেমা বানিয়েছিলেন ‘টোপ’। সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল ২০১৬।

- Advertisement -

বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের নির্মাণশৈলীর রয়েছে স্বতন্ত্র ধারা। শট, ফ্রেম দেখলেই বলে দেয়া যায়, এই সিনেমাটি কার।তিনি চলচ্চিত্র নির্মানের বাহিরে একজন কবি ছিলেন। তাঁর কবিতাপ্রেম হানা দিয়েছে চলচ্চিত্র নির্মানশৈলীতেও। তাঁর পরিচালিত সকল সিনেমায় তা স্পস্ট এবং উজ্জ্বল উপস্থিতি জানিয়ে দেয় কাব্যসত্ত্বার। সেলুলয়ডে তিনি কবিতা ও জাদুবাস্তবতায় আবার কখনো ইমেজ ও কম্পোজিশনের নান্দনিকতার অপূর্ব সমন্বয় ঘটিয়েছিলেন । এর ব্যতিক্রম ঘটেনি টোপ সিনেমায়।

টোপ-এর দৃশ্য হতে দৃশ্যান্তর এক কাব্যময় গতিতে এগিয়েছে। সিনেমায় আমরা দেখেছি যে, জঙ্গলে বিকেল থেকে সন্ধ্যা এবং রাত নামার যে দৃশ্যায়ন করেছেন, তখন আলো ও অন্ধকারের এই দৃশ্যান্তরেই একেকটি কবিতার জন্ম দেয়। শব্দহীনতায় মুক শটগুলো যেন একেকটি কবিতা। বিভিন্ন দৃশ্যের লং শট, মিডশটগুলোর ফ্রেমিং মুগ্ধতায় চমৎকৃত করেছে।

অভিনয় করছেন পাওলি দাম, অনন্যা চট্টোপাধ্যায়, সুদীপ্ত চট্টোপাধ্যায়, চন্দন রায় সান্যাল, মালবিকা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ।

- Advertisement -

Read More

Recent