বৃহস্পতিবার - এপ্রিল ১৮ - ২০২৪

মন্ট্রিয়েলের বাংলাদেশীরা রোজার দিনক্ষন নিয়ে বিভক্ত

গত পাঁচ বছর যাবত দেখে আসছি মন্ট্রিয়েলের বাংলাদেশীরা রোজার দিনক্ষন নিয়ে বিভক্ত

গত পাঁচ বছর যাবত দেখে আসছি, মন্ট্রিয়েলের বাংলাদেশীরা রোজার দিনক্ষন নিয়ে বিভক্ত। আমি যে এলাকায় থাকি, সেখানে দু’টো বিশাল বড় মসজিদ রয়েছে। একটি আরবীদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত সুন্নাহ জামে মসজিত। অন্যটি পাকিস্তানীদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত নূরে মদিনা জামে মসজিদ। দু’টোতেই অন্যান্য দেশের মুসলিমদের সাথে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশীরা নামাজ আদায় করেন। এর বাহিরে আমার এলাকায় বেশ কিছু ছোট বড় মসজিদ আছে,যা বাংলাদেশী ও পাকিস্তানীদের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত।

আগামীকাল সোমবার প্রথম রোজা। সুন্নাহ জামে মসজিদে তারাবিহ নামাজ হয়ে গেল। অন্যদিকে নূরে মদিনা জামে মসজিদে রাতে তারাবিহ নামাজ হয়নি। দুই মসজিদ কেন্দ্রিক বাংলাদেশীরা বিভক্ত হয়ে গেছে আগামীকালের রোজা নিয়ে। একদল বাংলাদেশী তারাবিহ নামাজ আদায় করে আগামীকাল রোজা রাখার প্রস্তুতি নিয়েছেন। অন্যদিকে আরেকদল বাংলাদেশী আগামীকাল সোমবার রাতে তারাবিহ নামাজ আদায় শেষে রোজা রাখার ঘোষনা দিয়েছেন।

- Advertisement -

এখানে তো সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে একইদিনে রোজা ও ঈদ উদযাপনের রেওয়াজ। কুইবেক ইসলামিক সেন্টার ঘোষিত সময়সুচী অনুযায়ী আগামীকাল প্রথম রোজা।

বুঝতে পারি না, এরপরও রোজার দিনক্ষন নিয়ে মন্ট্রিয়েলে বসবাসকারী বাংলাদেশীদের মাঝে কেন বিভক্তি?

মন্ট্রিয়ল, কানাডা

- Advertisement -

Read More

Recent