বুধবার - মে ২২ - ২০২৪

প্রিয়াঙ্কার বিশ্বসুন্দরীর খেতাব নিয়ে উঠলো প্রশ্ন

বলিউডের ‘দেশি গার্ল’ খ্যাত তারকা অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ২০০০ সালে সুন্দরী প্রতিযোগিতা ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ খেতাব জেতেন তিনি। এ জয়ের পর জল অনেক গড়িয়েছে। বলিউডে প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি হলিউডেও নিজের শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন এই অভিনেত্রী। প্রায় ২২ বছর পর প্রিয়াঙ্কার বিশ্বসুন্দরীর এই খেতাব নিয়ে কারচুপির অভিযোগ তুললেন একই আসরের প্রাক্তন প্রতিযোগী লেইলানি ম্যাককনি। কয়েক দিন আগে এক ভিডিও বার্তায় এমন অভিযোগ করেন তিনি।

- Advertisement -

সম্প্রতি ‘মিস ইউএসএ’ প্রতিযোগিতা নিয়ে বিতর্ক দানা বেঁধেছে। সকলে এই বিষয়ে তদন্তের দাবি করেছেন। তাদের মতে, এই শোয়ে সঠিক বিচার করা হয়নি। আর এ বিষয় নিয়ে লেইলানি একটি ভিডিও তৈরি করেছেন।

এ ভিডিওর শুরুতে লেইলানি বলেন, ‘মিস ইউএসএ’-এর ঘটনা আমাকে ২০০০ সালের বিশ্বসুন্দরীর প্রতিযোগিতার কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে। ওই আসরের অন্যতম স্পন্সর ছিল ভারতীয় একটি টিভি। যার কারণে ১৯৯৯ এবং ২০০০ সালের বিশ্বসুন্দরী ভারত থেকেই নির্বাচন করা হয়েছিল।’

‘আমি ‘মিস বার্বাডোজ’ হয়েছিলাম। কিন্তু বিশ্বসুন্দরীর খেতাব জয় করেছিলেন ‘মিস ইন্ডিয়া’। মনে রাখবেন তার আগের বছরও বিশ্বসুন্দরীর খেতাব ‘মিস ইন্ডিয়া’ জিতেছিলেন। ফলে পুরো বিষয়টি আমার কাছে খুব পরিচিত।’ বলেন লেইলানি।

প্রিয়াঙ্কাকে আলাদাভাবে কেয়ার করা হতো। তা উল্লেখ করে লেইলানি বলেন, ‘২০০০ সালের ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার আসরে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে অতিরিক্ত গুরুত্ব এবং প্রাধান্য দেওয়া হয়েছিল। তার জামা আকর্ষণীয় করে বানানো হয়েছিল। প্রিয়াঙ্কার ঘরে পৌঁছে দেওয়া হতো তার খাবার। খবরের কাগজে ছবি প্রকাশ করলেও বড় ছবিটি রাখা হতো প্রিয়াঙ্কার।’

দীর্ঘ দিন পর লেইলানির এমন অভিযোগে হতবাক নেটিজেনরা। অনেকের প্রশ্ন—এত বছর পর কেন এই অভিযোগ করছেন তিনি। তবে এ বিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

- Advertisement -

Read More

Recent