সোমবার - জুন ১৭ - ২০২৪

জন্মদিনের কেক খেয়ে অনন্ত জলিল বললেন, হায় হায় আমি তো রোজা!

রোজা রেখে ভুল করে কিছু খেয়ে ফেলা, এটা নতুন কিছু নয়। ছোট-বড় অনেকেই এমন ভুল করে থাকেন। এবার উত্তেজনার বশে সেই ভুলটাই করলেন অভিনেতা, প্রযোজক ও ব্যবসায়ী অনন্ত জলিল। নিজের জন্মদিনের দুপুরে কেক খাওয়ার পর বুঝলেন তিনি তো রোজা রেখেছেন।

- Advertisement -

সোমবার অনন্ত জলিলের জন্মদিন। অন্যদিকে ঈদে মুক্তি পেতে যাচ্ছে তার ‘কিল হিম’ সিনেমাটি। দুই উপলক্ষকে সামনে রেখে সোমবার বেলা ১১টায় ঢাকার মোহাম্মদপুরের নিজ বাসভবনে এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেছিলেন অভিনেতা। সেখানে জন্মদিনের কেকও কাটেন।

এসময় কেক কেটে ‘কিল হিম’ সিনেমার পরিচালক মো. ইকবাল অনন্তর মুখে তা তুলে দেন, সেটা সুন্দরভাবে মুখে নিয়ে খেতে থাকেন অনন্ত। এর কিছুক্ষণ পর পাশ থেকে কেউ একজন বলে উঠেন, ভাই আপনি রোজা। তাৎক্ষনিক অনন্ত বলে উঠেন,হায় হ্যায়, আমি তো রোজা। এরপর মুখ থেকে কেক ফেলে দেন।’

কিন্তু ভুল করে কিছু খেয়ে ফেললে কি রোজা ভেঙে যায়? এ সম্পর্কে আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি ভুলে আহার করল বা পান করল; সে যেন তার রোজা পূর্ণ করে। কারণ, আল্লাহই তাকে পানাহার করিয়েছেন।’ (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ১/২০২)

আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত আরেকটি হাদিসে আছে, ‘যে রমজান মাসে ভুলে পানাহার করল, তার ওপর কোনো কাজা নেই; কোনো কাফফারাও নেই।’ (ইবনে হিব্বান, হাদিস : ০৮/২৮৮; হাকিম, হাদিস : ০১/৪৩০; সাহিহুল জামি, হাদিস : ৬০৭০)

অর্থাৎ, হাদিস অনুযায়ী ব্যবসায়ী অভিনেতা অনন্ত জলিলের রোজা ভাঙেনি। যেহেতু তিনি জন্মদিনের উত্তেজনার বশে ভুল করে কেক মুখে তুলে নেন, বুঝতে পেরে সেটি ফেলেও দেন। তাই অভিনেতা যদি দিনের বাকি সময়টা পানাহার থেকে বিরত থাকেন, তবে তার রোজা হয়ে যাবে। সূত্র : ঢাকাটাইমস

- Advertisement -

Read More

Recent